মানুষ এই অরণ্যে চোখের পলকে অদৃশ্য হয়ে যায়

|

এই পৃথিবীতে এমন একটি রহস্যময় স্থান রয়েছে, যা জানতে পেরে কেউ অবাক হয় না। কিছু জায়গা খুব ভয়ঙ্কর, যেখানে কেউ যাওয়ার সাহস করে না। এমনকি বিজ্ঞানীরা আজ অবধি তাদের গোপন বিষয়টি বুঝতে পারেননি। রোমানিয়ার এমনই এক রহস্যময় বন রয়েছে যার নাম হোয়া বস্যু।

আজ অবধি এই অরণ্যে যা কিছু গিয়েছিল তা আর ফিরে আসতে পারেনি। বলা হয়ে থাকে যে এখানে মানুষ বা প্রাণী চোখের পলকে অদৃশ্য হয়ে যায়। তারা কোথায় যায় তা কেউ জানতে পারেনি। এই কারণেই লোকেরা এখানে আসতে ভয় পায়।

রহস্যজনক ঘটনা ঘটে

এই বনটি রোমানিয়ার ট্রানসিলভেনিয়া প্রদেশগুলিতে। এটি ক্লুজ নোপেকে শহরের পশ্চিমে ক্লুজ কাউন্টিতে প্রায় ৭০০ একর জায়গায় ছড়িয়ে রয়েছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এই বনে সবুজ রঙের চিহ্ন নেই সব গাছ ঝোপঝাড়ের মতো লাগে। এখানকার গাছের আকারও অদ্ভুত। এই অরণ্যে সর্বদা একটি ম্লান ছায়া থাকে এবং বিভিন্ন ধরণের ভীতিজনক কণ্ঠস্বরও এখানে আসে। কিছু লোক বলে যে উড়ে আসাগুলিও এই বনের উপরে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে।

প্রথমে একটি কাউবয় নিখোঁজ ছিল

কথিত আছে যে অনেক আগে একজন রাখাল ২০০ টি ভেড়া নিয়ে এই বনে গিয়েছিল। তার পরে আর ফিরে আসেনি। যারা তাকে খুঁজতে গিয়েছিল তারাও অদৃশ্য হয়ে গেল। এর পরে লোকেরা খুব ভয় পেয়ে সেখানে যেতে শুরু করে। অনেক সময় আশেপাশের গ্রামগুলির কিছু প্রাণী সেই জঙ্গলে যায় তবে তারা অদৃশ্য হয়ে যায়।

একটি মেয়ে বছর পরে ফিরে

এই বনে যাওয়া কেবলমাত্র একটি মেয়েই ফিরে আসতে পারে, তবে তাও ৫ বছর পরে। মেয়েটি পাশের গ্রামের বাসিন্দা এবং দুর্ঘটনাক্রমে বনে চলে গেল। লোকেরা বুঝতে পেরেছিল যে এখন সে আর ফিরে আসতে পারবে না। কিন্তু ফিরে এসে সে কিছুই বলার মতো অবস্থায় ছিল না। তাঁর স্মৃতিশক্তি কেটে গেল। মেয়েটি খুব অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। এর পরেই তাঁর মৃত্যু হয়। এই আরও ভয়ঙ্কর মানুষ।








Leave a reply