আশ্চর্য সুন্দর \’রামধনু ভুট্টা\’! ফলাতে পারেন আপনিও

|

আমরা সাধারণত হলুদ-সোনালী রঙের ভুট্টা দেখতেই অভ্যস্ত। অনেকেই হয়তো জানেন না যে রামধনুর মতো বাহারি রঙের ভুট্টাও জন্মায়। আর আপনিও চাইলে সহজেই নিজের বাগানে এমন আশ্চর্য রামধনু ভুট্টা ফলাতে পারেন। এই ভুট্টা থেকে তৈরি পপকর্নের রঙ তাহলে কেমন হয়?

২০১২ সালে প্রথম এই রামধনু পপকর্নের খবর নিয়ে হইচই হয়। সম্প্রতি রেডইট সহ কয়েকটি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি আবার ভাইরাল হয়েছে। যেখানে ছবিতে আশ্চর্য রঙের রামধনু ভুট্টা দেখা যাচ্ছে।

আমেরিকার কার্ল বার্নেস নামের এক কৃষক নানা ভাবে সাধারণ ভুট্টার থেকে কিছুটা আলাদা রঙের ভুট্টার বীজ জোগাড় করেন। এবং সেগুলোকে চাষ করতে থাকেন। ধীরে ধীরে সেই রঙের বৈচিত্র বাড়তে শুরু করে। তারপর ছবি, খবর সামনে আসার পরই হইচই শুরু হয় এই রামধনু ভুট্টা দানা নিয়ে।

কয়েক বছর আগে ‘গ্লাস জেম কর্ন’ নামে একটি ফেসবুক পেজও তৈরি হয়। সেখানেই এই বিচিত্র রঙের ভুট্টার নানা ছবি, ভিডিও পোস্ট হয় মাঝেমধ্যে। আমেরিকার অ্যারিজোনার ‘নেটিভ সিডস’ নামে একটি সংস্থা এই রামধনু রঙের ভুট্টার বীজ বিক্রি করে। তাদের ওয়েবসাইটে গিয়ে এই বীজের অর্ডার দেওয়া যায়। তবে রামধনু রঙের এই ভুট্টাগুলো থেকে তৈরি পপকর্নের রঙ সাদাই হয়, রঙিন নয়।

আপনিও যদি এই রামধনু রঙের ভুট্টা চাষ করতে আগ্রহী হন তবে তারও উপায় বাতলে দিয়েছেন এক রেডইট ইউজার। বীজগুলোকে এক ফুট দূরত্বে মাটিতে লাগিয়ে নিয়মিত পানি দিতে হবে। প্রথমে যখন এক ফুটের মতো উচ্চতা হবে গাছগুলোতে তখন একবার নাইট্রোজেন যুক্ত সার দিতে হবে। পরে যখন গাছগুলোতে ফল ধরবে তখন দ্বিতীয় বার আবার ওই সার দিতে হবে। ব্যাস আপনার বাগানেও ফলবে রামধনু ভুট্টা।

ভুট্টা (বৈজ্ঞানিক নাম Zea mays) একপ্রকারের খাদ্য শস্য। এই শস্যটির আদি উৎপত্তিস্থল মেসোআমেরিকা।[১][২] ইউরোপীয়রা আমেরিকা মহাদেশে পদার্পণ করার পর এটি পৃথিবীর অন্যত্র ছড়িয়ে পড়ে।

পুষ্টি মূল্য
ধান ও গমের তুলনায় ভুট্টার পুষ্টিমান বেশি। এতে প্রায় ১১% আমিষ জাতীয় উপাদান রয়েছে। আমিষে প্রয়োজনীয় এ্যামিনোএসিড, ট্রিপটোফ্যান ও লাইসিন অধিক পরিমানে আছে। এছাড়া হলদে রংয়ের ভুট্টা দানায় প্রতি ১০০ গ্রামে প্রায় ৯০ মিলিগ্রাম ক্যারোটিন বা ভিটামিন “এ” থাকে।








Leave a reply