সোশ্যাল মিডিয়া, ইন্টারনেট থেকে শিশুদের দূরে রাখতে নিচের নিয়ম অনুসরণ করুন

|

আজকের ডিজিটাল বিশ্বে, শিশুদের কাছে স্মার্টফোন থাকা সাধারণ বিষয়। এই সময়ে ফোন রাখাও ঠিক কারণ ইন্টারনেটে শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কোন দেশের শিশুরা সেই দেশের ভবিষ্যত। কিন্তু শিশুরা ইন্টারনেটের আসক্তি তাঁর শৈশব এবং জীবনের জন্য হুমকিতে পরিণত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে তাদের পরিচালনা করা কঠিন হয়ে পড়েছে। তবে আজ আমরা আপনাকে এমন কিছু উপায় বলছি যাতে আপনি বাচ্চাদের সামাজিক মিডিয়া এবং মোবাইল ফোন থেকে দূরে রাখতে পারেন।

বাচ্চাদের সাথে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিবেন না: বাচ্চাদের কখনই মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেওয়া উচিত নয়। তবে প্রায়শই দেখা যায় যে, বাবা-মা তাদের সন্তানদের বলেন যে, তারা যদি দ্রুত বাড়ির কাজ এবং পড়াশুনা শেষ করে তবে তাদেরকে ফোন দেয়া হবে ।

সুতরাং এ জাতীয় পরিস্থিতিতে বাচ্চাদের সমস্ত মনোযোগ স্মার্টফোনে ফোকাস করে এবং বাচ্চারা দ্রুত তাদের পড়াশোনা সমাপ্ত করে। কিন্তু বাচ্চারা যদি পরে স্মার্টফোনটি আবার না পায়, তবে বাচ্চারা বাবা-মায়ের প্রতি একটি নেতিবাচক অনুভূতি বিকাশ করে। পিতামাতাদের তাদের বাচ্চাদের সাথে এই জাতীয় প্রতিশ্রুতি দেওয়া এড়ানো উচিত।

রাতে স্মার্টফোন দেবেন না: আমরা সকলেই জানি যে রাতে স্মার্টফোন থেকে উদ্ভূত আলোর রশ্মির চোখের উপর সরাসরি প্রভাব ফেলে, তাই বাচ্চাদের রাতের অন্ধকারে মোবাইল চালানো থেকে দূরে রাখতে হবে। বাচ্চাদের রাতে মোবাইল দেওয়া উচিত নয়।

বাচ্চাদের ধাঁধা গেমের জন্য আনুন: বাচ্চারা যখন স্মার্টফোনে সংযুক্ত থাকে, তখন তারা এই ফোনগুলি ছাড়া কোন কিছুই পছন্দ করে না। আপনি আপনার বাচ্চাদের জন্য ধাঁধা গেমস আনতে পারেন এবং তাদের সাথে খেলার ছলে সময় দিতে পারেন। কারণ তাদের মারধরের পরিবর্তে তাদের খেলাধুলা এবং অন্যান্য ক্রিয়াকলাপে রাখাই ভাল। এটি বাচ্চাদের মনোযোগ মোবাইল থেকে দূরে রাখে।








Leave a reply