বাজারে এলো সিম্ফনির নতুন ফোন ‘আই৯৯’

|

বিশ্ববাসী এখন এক কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। নতুন স্বাভাবিকতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে জীবন এগিয়ে নেয়ার চ্যালেঞ্জ সবার সামনে। এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য; বিশেষ করে মোবাইল ডিভাইস। কভিড-১৯ মহামারীর এ সময় ঘরে বসে দৈনন্দিন কাজ সহজ করতে সিম্ফনি এনেছে নতুন এক স্মার্টফোন। ৬ হাজার ৯৯০ টাকা দামের সাশ্রয়ী সিম্ফনি আই৯৯ ডিভাইসটি এখন দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

মোবাইল ডিভাইস মহামারীর বাস্তবতা মোকাবেলা করে অফিসের কার্যক্রম পরিচালনা অনেকটা সহজ করেছে। আগে যে কাজটি আমরা অফিসে বসে করতাম, তাই এখন বাসা থেকে মোবাইলের মাধ্যমে করছি। আগে যে ছাত্র-ছাত্রীরা স্কুল-কলেজ বা ভার্সিটিতে গিয়ে ক্লাস করত, তারাও এখন ক্লাস করছে বাসায় বসে মোবাইলের মাধ্যমে। যে শিক্ষক ক্লাসরুমে ক্লাস নিতেন, তিনিই এখন বাসায় থেকে ক্লাস নিচ্ছেন মোবাইলের মাধ্যমে। অফিসের মিটিংও হচ্ছে মোবাইলের মাধ্যমে।

অনলাইন ক্লাস বা অফিসের মিটিং প্রয়োজন তুলনামূলক বড় ডিসপ্লের এবং ভালো মানের ক্যামেরার স্মার্টফোন। যারা সাধ্যের মধ্যে সময়কে জয় করার নতুন গল্প লিখতে চান, তাদের জন্য সিম্ফনির নতুন স্মার্টফোন সিম্ফনি আই৯৯।

২৮২ পিক্সেল ডেনসিটি এবং ৬.০৯ এইচডি প্লাস ভিনচ আইপিএস ডিসপ্লের হ্যান্ডসেটটিতে আছে লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেম। ১ দশমিক ৬ গিগাহার্টজের অক্টা-কোর প্রসেসর সংবলিত ২ গিগাবাইট ডিডিআর ফোর র‍্যামের এ ডিভাইসে ১৬ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ সুবিধা মিলবে, যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। চমত্কার ক্যামেরার বড় ডিসপ্লে এবং ফোরজি কানেক্টিভিটির কারণে অনলাইন ক্লাস করা বা ক্লাস নেয়া কিংবা অফিশিয়াল মিটিং হবে আরো বেশি সাবলীল।

৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরার সিম্ফনি আই৯৯ ফোনের রিয়ার ক্যামেরার অ্যাপারচার ১ দশমিক ৯ এবং ফ্রন্ট ক্যামেরার অ্যাপারচার ২.০। ক্যামেরার উল্লেখযোগ্য মোডগুলো হলো ম্যানুয়াল, ওয়াটার মার্ক, এই আই, প্যানরোমা, টাইম ল্যাপস, বোকেহ, কম্পোজিশন লাইন, টাচিং ফটোগ্রাফি, স্মাইল শাটার, অডিও নোট, ফেস বিউটি, এইচডিআর, কিউ আর কোড, বার্স্ট, মিরর রিফ্লেকশন, ভলিউম কি ফাংশন, ফিঙ্গার ক্যাপচার, পিকচার সাইজ, কাউন্টডাউন ডিউরেশন ও ফিল্টার্স।

ডিভাইসটির ৩৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি দীর্ঘ সময় পাওয়ার ব্যাকআপ দেবে। সবধরনের মাল্টিমিডিয়া সুবিধাসহ জি সেন্সর, লাইট সেন্সর, প্রক্সিমিটি সেন্সর ছাড়াও হ্যান্ডসেটটিতে আছে মাল্টিফাংশনাল ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এবং ফেস আনলক সুবিধা। অন্যান্য ফিচারের মধ্যে আছে স্ক্রিন রেকর্ডার, ডার্ক মোড, বোথ ক্যামেরা এ আই সিন রিকগনিশন, স্মার্ট কন্ট্রোল ও স্মার্ট জেশচার। ডিভাইসটি চারটি রঙে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।








Leave a reply