করোনাকালে রিয়েলমির রেকর্ড প্রবৃদ্ধি,দেখে নিন

|

টেক ট্রেন্ডসেটিং স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি তাদের ২০২০ সালের প্রথম অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ২০২০ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে একমাত্র স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে রিয়েলমি দুই অঙ্কের- ১১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে এবং কাউন্টারপয়েন্টের প্রতিবেদন অনুসারে, টানা চার প্রান্তিকে বিশ্বের দ্রুততম বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ডের স্থান ধরে রেখেছে।

কাউন্টারপয়েন্ট আরো জানায়, এ বছরের প্রথম প্রান্তিকে যে দুটি ব্র্যান্ড ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে তার মধ্যে রিয়েলমি একটি, যাদের প্রবৃদ্ধি আগের বছরের তুলনায় ১৫৭ শতাংশ বেশি।

এ বছরের প্রথমার্ধে রিয়েলমি ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে দেড় কোটি, এখন মোট ৪ কোটি গ্রাহকের পরিবার। ব্র্যান্ডটি থাইল্যান্ড, ভারত, কম্বোডিয়া এবং মিশরে শীর্ষ ৪ এবং মিয়ানমার, ফিলিপাইন, ইউক্রেন, ইন্দোনেশিয়া এবং ভিয়েতনামে শীর্ষ ৫ এ অবস্থান করছে। এছাড়া ইতিমধ্যে এক্স৫০ প্রো ৫জি ফোনের মাধ্যমে রিয়েলমি ৫জি দুনিয়ায় প্রবেশ করেছে। ভারত ও থাইল্যান্ডের বাজারে ৫জি ফ্ল্যাগশিপ ফোন নিয়ে আসে। এছাড়া ১,০০০ মার্কিন ডলারেরও কমে ক্যাম্বোডিয়ার প্রথম ৫জি ফোন লঞ্চ করে। 

২০২০ সালে রিয়েলমি ‘স্মার্টফোন + এআইওটি’ স্ট্র্যাটেজি হাতে নিয়েছে। যার আওতায় এ বছরের শেষ নাগাদ ৫০টি এআইওটি পণ্য বাজারে আনার পরিকল্পনা করেছে, যে সংখ্যা তারা পরবর্তী বছরে ১০০ তে উন্নীত করবে। ব্র্যান্ডটি তাদের এআইওটি স্ট্র্যাটেজিকে ‘১+৪+এন’ উদ্যোগ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করেছে, যেখানে একটি মূল পণ্যের (স্মার্টফোন) সঙ্গে থাকবে চারটি প্রধান গ্রুপের লাইফস্টাইল ডিভাইস এবং পরিপূরক হিসেবে ‘এন’ সংখ্যক স্মার্ট অ্যাকসেসরিজ। 

রিয়েলমির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা লি বিংজং বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য আগামী তিন বছরের ভেতর ১০ কোটি স্মার্টফোন বিক্রি করা এবং প্রবৃদ্ধি বজায় রাখতে আন্তর্জাতিক বাজারে সম্প্রসারণ অব্যাহত রাখা। তিনি আরো বলেন, রিয়েলমি এখন পর্যন্ত প্রায় ৬০টি দেশ এবং অঞ্চলে পৌঁছে গেছে এবং গ্রাহকপ্রিয়তা অর্জন করেছে। বিশ্বের দ্রুততম বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে আমাদের মিশন ‘ডেয়ার টু লিপ’ স্পিরিটে তরুণদের ক্ষমতায়ণে ভূমিকা রাখা।’








Leave a reply