লর্ডসের অনার্স বোর্ডে কাটার মাস্টারের নাম

|

অবিশ্বাস্য এক প্রতিভা নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাব হয়েছিল মোস্তাফিজুর রহমানের। তার মায়াবী কাটারের জাদুতে বিভ্রান্ত করেছেন অসংখ্য তারকা ব্যাটসম্যানকে। তবে সময় যত গড়িয়েছে, মোস্তাফিজের ধার যেন ততই কমছে।

চোট সমস্যা ছিল, অস্ত্রোপচারের পর যেন হারিয়ে যেতে বসেছিলেন মোস্তাফিজ। তবে ধীরে ধীরে মুস্তাফিজ নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন। এত প্রতিকূলতার মাঝেও শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নেমে নতুন এক মাইলফলক গড়েছেন কাটার মাস্টার।

নিজের আসল ছন্দটা খুঁজে পান ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে। ওই ম্যাচে ১০ ওভার বল করে এক মেইডেনসহ ৫৯ রান দিয়ে ৫ উইকেট পান মোস্তাফিজ। সাকিবের পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বকাপে ৫ উইকেট পাওয়ার কীর্তি গড়েন তিনি।

শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক লর্ডসে বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে মাঠে নামে বাংলাদেশ। যেখানে নতুন এক কীর্তি গড়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০ ওভার বল করে ৭৫ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন কাটার মাস্টার।

আর এই পাঁচ উইকেটের মাধ্যমেই ঐতিহাসিক লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম তুলেছেন এই পেসার। এর আগে লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম তুলেছিলেন তামিম ইকবাল ও পেসার শাহাদাত হোসেন রাজিব। তবে তারা দুজনই নাম তুলেছিলেন টেস্ট খেলে। এবার মোস্তাফিজ অনার্স বোর্ডে নিজের নাম তুললেন ওয়ানডেতে ৫ উইকেট নিয়ে।

আজ আরোও একটি মাইলফলক স্পর্শ করেছেন ফিজ। বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে দ্রুততম হিসেবে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি। ৫৪ ম্যাচের ৫৩ ইনিংসে বল করে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছেন মোস্তাফিজ। এর আগে বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুততম বোলার হিসেবে ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করার রেকর্ড ছিলো বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের দখলে। ১০০ উইকেট পেতে রাজ্জাকের লেগেছিল ৬৯টি ওয়ানডে।

শুধু তাই নয়, এশিয়ার পেসারদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুততম ১০০ উইকেট নেয়ারও কীর্তি এখন মোস্তাফিজের। আর ওয়ানডে ইতিহাসে যৌথভাবে চতুর্থ দ্রুততম ১০০ উইকেট নেওয়া ক্রিকেটার তিনি।

৫২ ও ৫৩ ইনিংসে ১০০ উইকেট নিয়ে যথাক্রমে এই তালিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে আছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্ক ও পাকিস্তানের সাবেক স্পিনার সাকলাইন মুশতাক।

মোস্তাফিজের সমান ৫৪ ম্যাচে ১০০ উইকেট নিয়ে এতদিন এককভাবে চতুর্থ স্থানে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক পেসার শেন বন্ড। সবচেয়ে কম ম্যাচে ১০০ উইকেট নেওয়ার কীর্তিটা আছে আফগানিস্তানের রশিদ খানের দখলে। ১০০ উইকেট নিতে তিনি খেলেন মাত্র ৪৪ ম্যাচ।








Leave a reply