বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর ২৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের

|

তিন টেস্ট খেলতে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা যাবে বাংলাদেশ জাতীয় দল। আজ (শনিবার) দুপুরে বিসিবির পরিচালক ও ক্রিকেট অপরারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান রাইজিংবিডিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিনটি টেস্ট খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। দুই দলের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিন টেস্ট করোনার কারণে স্থগিত হয়েছে। শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশকে আতিথেয়তা দেওয়ার ইচ্ছে থাকলেও করোনা পরিস্থিতিতে ঝুঁকি নিতে রাজি হয়নি বাংলাদেশ।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে আছে শ্রীলঙ্কা। দ্বীপরাষ্ট্রে শুরু থেকে কারফিউ জারি করায় করোনা আক্রান্ত ছিল নিয়ন্ত্রণে। এখন পর্যন্ত সেখানে করোনা ধরা পড়েছে ২৮৩৯ জনের। মৃত্যুর সংখ্যা ১১ জন। শ্রীলঙ্কাকেই সবচেয়ে নিরাপদ ভাবছে বিসিবি। পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় দুই বোর্ড সিরিজটি আয়োজন করতে মুখিয়ে।

এরই মধ্যে আলোচনা অনেক দূর এগিয়েছে। সফরসূচিও প্রায় চূড়ান্ত। বাংলাদেশ দল কলম্বো যাবে ২৪ সেপ্টেম্বর। ১২ অক্টোবর শুরু হবে প্রথম টেস্ট। বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, শিগগিরই সফর সূচি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড।

আকরাম খান বলেন, ‘দুই বোর্ড প্রাথমিক আলোচনায় সফর চূড়ান্ত করেছে। আমরা ২৪ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা যাবো। সেখানে কোয়ারেন্টাইন এবং প্রস্তুতি শেষ করে আমরা ম্যাচ খেলতে নামবো।’

মাঠে ফিরতে মুখিয়ে আছেন মুমিনুল হকও। টেস্ট অধিনায়ক রোববার মিরপুরে ঐচ্ছিক অনুশীলনে যোগ দিয়ে বলেন, ‘চার-পাঁচ মাস বাইরে ছিলাম। ক্রিকেটটা অনেক মিস করেছি। বিশ্বের অনেকগুলি দল ক্রিকেট ফিরেছে। ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের দেখলে অবশ্যই খারাপ লাগে, মিস করি। আমরাও আস্তে আস্তে ক্রিকেটে ফেরার চেষ্টা করছি। সামনে আমাদের টেস্ট ম্যাচ আছে। সেজন্য আমরা ভালো একটা প্রস্তুতি নেব। ভালোভাবে শুরু করতে পারব ইনশাআল্লাহ।’

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড আলোচনার শুরুতেই জানিয়ে দিয়েছে, তাদের ক্রিকেটার দিয়ে বাংলাদেশকে কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ দিতে পারবে না। করোনার কারণে আইসিসির কড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হয়। সেসব প্রক্রিয়া মানতে গিয়ে সফর দীর্ঘ হবে। এজন্য নিজেদের বোর্ড একাদশ বা ‘এ’ দলের সঙ্গে বাংলাদেশকে কোনো প্রস্তুতি খেলার সুবিধা দেবে না শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট।

প্রায় একই সময়ে বাংলাদেশ থেকে এইচপি দল শ্রীলঙ্কা সফর করবে। এইচপি দলের বিপক্ষে ম্যাচ খেলে মুমিনুলরা নেবেন প্রস্তুতি। আকরাম খানও জানিয়ে রাখলেন দেশে এবং শ্রীলঙ্কায় পুরো দলকে প্রস্তুতির যথেষ্ট সুযোগ দেওয়া হবে। টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুলও মনে করেন প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি থাকবে না।

তার ভাষ্যে, ‘যখন আমরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাবো, আমরা পর্যাপ্ত প্রস্তুতি পাবো। অনুশীলন, অনুশীলন ম্যাচ সহ প্রস্তুতি খুব ভালো হবে আশা করি।

এইচপি ও জাতীয় দলের খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ ও কর্মকর্তাসহ দ্বীপরাষ্ট্রে বাংলাদেশের বহর প্রায় ৫০ জনে গিয়ে ঠেকবে। বিশাল এ বহরকে চার্টার্ড ফ্লাইটেই কলম্বো পাঠানোর পরিকল্পনার বিসিবির।








Leave a reply