চতুর্থবার সভাপতি হতে কী প্রতিশ্রুতি দেবেন কাজী সালাউদ্দিন?

|

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচনের ১৩ দিন আগে আগামীকাল (রোববার) ইশতেহার ঘোষণা করবে কাজী মো. সালাউদ্দিন ও আবদুস সালাম মুর্শেদীর নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ।

দুপুর ১২টায় রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে কাজী মো. সালাউদ্দিন ইশতেহার ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন সম্মিলিত পরিষদের চিফ কো-অর্ডিনেটর শামসুল হক চৌধুরী এমপি।

আগামী ৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাফুফের বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন। কাজী মো. সালাউদ্দিন ও সালাম মুর্শেদীর নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে সমন্বিত পরিষদ। এ পরিষদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বর্তমান কমিটির সদস্য শেখ মোহাম্মদ আসলাম। তিনি সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সমন্বিত পরিষদে এখনও সভাপতি প্রার্থী নেই।

কাজী মো. সালাউদ্দিনের বিপক্ষে দুজন সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি বাদল রায়। সাবেক ফুটবলার ও কোচ সফিকুল ইসলাম মানিক আছেন সালাউদ্দিনের একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে।

২১ পদে জন্য ৪৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে সভাপতি পদে দুজন, সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে দুজন, সহ-সভাপতি পদে আটজন এবং সদস্য পদে ৩৪ জন।

কাজী মো. সালাউদ্দিন টানা চতুর্থবারের মতো সভাপতি হওয়ার জন্য নির্বাচন করছেন। চতুর্থবারের মতো সভাপতি প্রার্থী হয়ে দেশের ফুটবল উন্নয়নের জন্য কী প্রতিশ্রুতি ও পরিকল্পনা উপস্থাপন করবেন ইশতেহারের, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

সম্মিলিত পরিষদ

সভাপতি : কাজী মো. সালাউদ্দিন।

সিনিয়র সহ-সভাপতি : আবদুস সালাম মুর্শেদী।

সহ-সভাপতি : কাজী নাবিল আহমেদ, আমিরুল ইসলাম বাবু, ইমরুল হাসান, আতাউর রহমান মানিক।

সদস্য : হারুনুর রশিদ, শওকত আলী খান জাহাঙ্গীর, সত্যজিৎ দাশ রুপু, ইলিয়াছ হোসেন, বিজন বড়ুয়া, অমিত খান শুভ্র, ইকবাল হোসেন, মাহিউদ্দিন আহমেদ সেলিম, মো. জাকির হোসেন, মাহফুজা আক্তার কিরণ, আসাদুজ্জামান মিঠু, কামরুল হাসান হিলটন, সৈয়দ রিয়াজুল করিম, ইমতিয়াজ হামিদ সবুজ ও নুরুল ইসলাম নুরু।








Leave a reply