শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিল পাকিস্তান, প্রাথমিকের সিদ্ধান্ত পরে

|

পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত তিন লাখ দুই হাজার চারশ ২৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। তার মধ্যে ছয় হাজার তিনশ ৮৯ জন মারা গেছেন। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৯০ হাজার দু’শ ৬১ জন। বর্তমানে আক্রান্ত অবস্থায় আছেন মাত্র পাঁচ হাজার সাতশ ৭৪ জন।

করোনার জেরে দীর্ঘদিন ধরে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার পর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করল দেশটি। প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাড়া সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ছয় মাস পর মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় আজ মঙ্গলবার থেকে পুনরায় খুলে দেওয়া হলো পাকিস্তানে।

পাকিস্তান সরকার বলছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালুর পর করোনাভাইরাস যেন ছড়িয়ে যেতে না পারে সেজন্য কঠোরভাবে বিধি-নিষেধ মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেশী দেশ ভারতের তুলনায় পাকিস্তান করোনায় অনেকটাই ভালো অবস্থানে রয়েছে। কারণ, ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে ৪৯ লাখ ৩০ হাজার দু’শ ছয়জন এবং মারা গেছে ৮০ হাজার আটশ আটজন। এখনো ণয় লাখ ৯০ হাজারের বেশি মানুষ সে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে আছে।

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট মহামারি পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন ধরেই সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছিল পাকিস্তান। কিন্তু এবার প্রাথমিক ছাড়া অন্যসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তানে দীর্ঘ ৬ মাস পর প্রথমবার মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় পুনরায় খুলে দেওয়া হচ্ছে।

দেশজুড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করার এটাই প্রথম পদক্ষেপ বলে জানিয়েছে পাকিস্তান সরকার। তবে করোনাভাইরাসের বিস্তার যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য কঠোর বিধি-নিষেধ মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৪০৪ জন। অপরদিকে একদিনেই মারা গেছে আরও ৬ জন। একদিন আগেই আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫৩৯ এবং মৃত্যু হয়েছে চারজনের।

তার আগের দিন দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫২৬ এবং মারা গেছে ৬ জন। পাকিস্তানে সাম্প্রতিক সময়ে সংক্রমণ অনেকটাই কমতে দেখা গেছে। দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে তাই লকডাউন তুলে ধাপে ধাপে সবকিছু স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

প্রতিবেশী ভারতের তুলনায় পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত সংক্রমণ ও মৃত্যু অনেক কম। দেশটি করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনতে সম্ভব হয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই তালিকায় ভারতের অবস্থান ২য় এবং পাকিস্তান ১৭তম।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশে প্রথম করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ে। তারও অনেক পড়ে পাকিস্তানে প্রথম এই ভাইরাস শনাক্ত হয়।

এদিকে, ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান বলছে, পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ২ হাজার ৪২৪। এর মধ্যে মারা গেছে ৬ হাজার ৩৮৯ জন।

তবে পাকিস্তানে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে অধিকাংশই ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে। সেখানে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ২ লাখ ৯০ হাজার ২৬১ জন। বর্তমানে সেখানে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ৫ হাজার ৭৭৪টি। অপরদিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে ৫৬৩ জন।








Leave a reply