রাস্তায় পড়ে মুয়াজ্জিনের করুণ মৃত্যু, এগিয়ে এলোনা কেউ

|

শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে রাস্তায় দীর্ঘক্ষণ পড়ে ছিলেন সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয় মসজিদের মুয়াজ্জিন মাওলানা সুলতান আহমদ (৫০)। আশপাশের লোকজনকে ডাকলেও করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে বেশ কিছুক্ষণ কেউ এগিয়ে আসেননি।

রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে। পরে সিএনজি অটোরিকশায় করে হাসপাতালে নেওয়া হলেও ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। ওসমানী হাসপাতালে নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মাওলানা সুলতান আহমদ।

ঘটনার সময় সেখানে ছিলো শত শত মানুষের লাইন। বিদেশ গমন্নেছুদের করোনা পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন চলছিলো তখন। এসময় তাদের অদূরে কার্যালয়ের সামনের রাস্তায় পড়েছিলেন সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয় মসজিদের মুয়াজ্জিন।

রবিবার জোহরের আযানের পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে তিনি রাস্তায় পড়ে যান। দুপুর দেড়টা পর্যন্ত রাস্তায় পড়েছিলেন তিনি। আশপাশের লোকজনকে ডেকেওছিলেন কয়েকবার, কিন্তু করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে কেউ এগিয়ে আসেননি। এমনকি প্রথমে সিভিল সার্জন অফিসের কোন কর্মকর্তা-কর্মচারীও এগিয়ে আসেননি।

মাওলানা সুলতানের বাড়ি নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায়। তিনি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কোয়ার্টারে থাকতেন আর পরিবারের সদস্যরা থাকেন নেত্রকোনায়।

কিছুক্ষণ পর সিভিল সার্জন অফিসের নিরাপত্তাকর্মী সুশীল মোহন্ত কয়েকজনের সহায়তায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সিএনজি অটোরিকশায় করে হাসপাতালে নেওয়া হলেও ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। ওসমানী হাসপাতালে নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মাওলানা সুলতান আহমদ।

এ বিষয়ে সিভিল সার্জন অফিসের নিরাপত্তাকর্মী সুশীল মোহন্ত জানান, প্রায় ২০-২২ বছর ধরে মাওলানা সুলতান মসজিদের মুয়াজ্জিন হিসেবে রয়েছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে উচ্চ রক্তচাপ রোগে ভুগছিলেন।

মুয়াযযিন / মুয়াজ্জিন (/muːˈɛzɪn/; তুর্কী: müezzin, আরবি: مؤذن‎‎, ইংরেজি: Muazzin, mu’aḏḏin), হলেন সেই ব্যক্তি যিনি নামাজের সময় হলে জামাতে অংশগ্রহণের আহবান জানিয়ে মসজিদ থেকে উচ্চস্বরে আযান দিয়ে থাকেন। এছাড়া জামাতে নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রে তিনিই ইক্বামাহ্‌ দিয়ে থাকেন।

David A. King (১৯৯৬)। “On the Role of the Muezzin and the Muwaqqit in Medieval Islamic Society”। Tradition, transmission, transformation: Proceedings of two conferences on pre-modern science held at the University of Oklahoma। Brill: 285–346। আইএসবিএন 90-04-10119-5।








Leave a reply