বাবরি মসজিদ ছিল,আছে এবং থাকবে! ভূমি পুজোর দিন স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন আসাদউদ্দিন ওয়াইসি

|

অযোধ্যায় বুধবার হওয়া ভূমি পুজোর অবসরে লোকসভার সাংসদ তথা সর্বভারতীয় মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (All India Majlis-e-Ittehadul Muslimeen) এর প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi) বাবরি মসজিদকে স্মরণ করেন। ১৫২৮ সালে অযোধ্যায় মুঘল সম্রাট বাবর মসজিদের শিলন্যাস করেছিলেন। সেই মসজিদটির গুম্বজ ১৯৯২ এর ৬ ডিসেম্বর রাম মন্দির আন্দোলনে করসেবকেরা ভেঙে দেন। ওয়াইসি ট্যুইটে লেখেন, ‘বাবরি মসজিদ ছিল, আছে আর থাকবে।”

#BabriMasjid thi, hai aur rahegi inshallah #BabriZindaHai pic.twitter.com/RIhWyUjcYT

— Asaduddin Owaisi (@asadowaisi) August 5, 2020

ওয়াইসি বিগত কয়েকদিন ধরে ভূমি পুজো নিয়ে বিরোধিতা করে আসছেন। গত সপ্তাহে উনি বাবরি মসজিদ বিধ্বস্ত করার জন্য কংগ্রেসকে দায়ি করেছেন। উনি একটি ট্যুইটে লেখেন, ‘যার জন্য এত কিছু হয়েছে তাঁকে ক্রেডিট দেওয়া উচিৎ। রাজীব গান্ধীই ছিলেন যিনি বাবরি মসজিদের তালা খুলেছিলেন আর পিভি নরশিমহা রাও প্রধানমন্ত্রী আসনে বসে বাবরি মসজিদকে বিধ্বস্ত হতে দেখেছিলেন। কংগ্রেস সংঘ পরিবারের সাথে এই বিধ্বস্ত অভিযানকে হাতে হাত ধরে দেখেছিল।”

ওয়াইসি ভূমি পূজন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতি নিয়েও প্রশ্ন করেন। উনি বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সংবিধান শপথকে অমান্য করছেন। ২৯ জুলাই ওয়াইসি ট্যুইট করে লিখেছিলেন, ‘অফিসিয়ালি ভাবে ভূমি পুজোর অংশ নেওয়া প্রধানমন্ত্রীর সংবিধান শপথের লঙ্ঘন হবে। ধর্মনিরপেক্ষতা সংবিধানের মূল স্তম্ভ।” এর সাথে সাথে উনি এও লেখেন, আমরা ভুলতে পারব না যে ৪০০ বছর ধরে অযোধ্যায় সেই জায়গায় বাবরি মসজিদ দাঁড়িয়েছিল সেটিকে ১৯৯২ সালে অপরাধীরা ভেঙে দেয়।








Leave a reply