ফেরত দেওয়া হবে এইচএসসির আংশিক ফি

|

এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা বাতিল হওয়ায় ফরম ফিলআপের আংশিক টাকা পরীক্ষার্থীদের ফেরত দেবে শিক্ষা বোর্ডগুলো। দেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানদের নিয়ে গঠিত আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক বুধবার সমকালকে বলেন, এবার এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল করায় শিক্ষার্থীদের কিছু টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যেসব খাতের টাকা খরচ হয়নি, তা ফেরত দেওয়া হবে। পরীক্ষার কেন্দ্র ফি থেকে কিছু অংশ, ইনভিজিলেটর ফি ছাড়াও ব্যবহারিক পরীক্ষার ফি থেকে কিছু অংশ শিক্ষার্থীরা ফেরত পাবে বলে জানান তিনি।

এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা না নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর ফরম ফিলআপের টাকা ফেরতের দাবি ওঠে। তবে সে সময়ে কয়েকটি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান জানান, এরই মধ্যে খাতা কেনা, কাগজ কেনা, প্রশ্নপত্র মুদ্রণসহ বেশ কিছু টাকা এই খাতে তাদের খরচ হয়ে গেছে। তবে কেন্দ্র ফি, খাতা দেখার টাকা, পরিদর্শকদের ফি তাদের দিতে হচ্ছে না। কীভাবে এবং কত টাকা করে শিক্ষার্থীদের ফেরত দেওয়া হবে, সে বিষয়ে বোর্ড কাজ করছে বলে জানান অধ্যাপক জিয়াউল হক।

এইচএসসির ফরম ফিলআপের জন্য গত বছরের নভেম্বরে কেন্দ্র ফিসহ বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আড়াই হাজার টাকা এবং মানবিক ও বাণিজ্য শাখার শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এক হাজার ৯৪০ টাকা ফি ধরা হয়।

এর মধ্যে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের বোর্ড ফি বাবদ এক হাজার ৬৯৫ টাকা এবং মানবিক ও বাণিজ্যের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এক হাজার ৪৯৫ টাকা করে নেওয়া হয়েছিল। এর বাইরে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কেন্দ্র ফি (ব্যবহারিক ফিসহ) হিসেবে ৮০৫ টাকা এবং মানবিক ও বাণিজ্যের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৪৪৫ টাকা করে নেওয়া হয়।








Leave a reply