পাটকল শ্রমিকদের পাওনা আগামী মাসেই পরিশোধ

|

বন্ধ ঘোষিত রাষ্ট্রায়ত্ত ২৫ পাটকলের মধ্যে চট্টগ্রামের হাফিজ জুট মিল ও খুলনার ইস্টার্ন জুট মিলসের শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের কার্যক্রম শুরু হবে আগামী রোববার। এই প্রক্রিয়ায় আগামী মাসের মধ্যে বাদবাকি পাটকলের শ্রমিকদেরও সমুদয় পাওনা পরিশোধ করা হবে।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দিয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেনের (বিজেএমসি) অধীনে থাকা বন্ধ ঘোষিত পাটকলের শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের বিষয়ে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল কালামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, বন্ধ ঘোষিত আটটি পাটকলের শ্রমিকদের পাওনা বাবদ এ পর্যন্ত এক হাজার ৭৯০ কোটি ৫২ লাখ টাকা অর্থ বিভাগ থেকে পাওয়া গেছে। এই অর্থ শ্রমিকদের ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর এবং সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে পরিশোধ করা হচ্ছে।

কাঁচাপাটের অতিরিক্ত মূল্য সম্পর্কে তিনি বলেন, পৃথিবীজুড়ে পাটের কদর ও চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় পাটচাষিরা কাঁচা পাটের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন। চলতি পাট মৌসুমে কাঁচা পাটের গড়দর তিন হাজার টাকা পর্যন্ত পৌঁছেছে। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ৫০ শতাংশ বেশি। এর ফলে পাটচাষিরা ভবিষ্যতে অধিক পরিমাণে পাট চাষে আগ্রহী হবেন। এতে দেশের অর্থনীতিতে পাট খাতের অবদান আরও সুসংহত হবে। বন্ধ পাটকলগুলো পুনরায় চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। এ লক্ষ্যে গঠিত দুটি কমিটি কাজ করছে। ক্রমাগত লোকসানের কারণে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পাটকলগুলো গত জুলাই থেকে বন্ধ ঘোষণা করে সরকার।








Leave a reply