তহবিলে সংকটে ইয়েমেনে বন্ধ জাতিসংঘের ৭০% জরুরি স্বাস্থ্য কর্মসূচি

|

তহবিলে সংকটে পড়েছে জাতিসংঘ। তাই মহামারি করোনা মতো বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংকটকালেও সংস্থাটি সেপ্টেম্বরের শুরুতে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনে প্রাণদায়ী জরুরি স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচির ৭০ শতাংশই বন্ধ করে দিয়েছে। জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) ইয়েমেন শাখার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই তথ্য।

ইউএনএফপিএ এক টুইট বার্তায় লিখেছে, ‘তহবিলের সংকটের কারণে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইয়েমেনে জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের প্রাণদায়ী ৭০ শতাংশ জরুরি স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে।’ এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা মিডল ইস্ট মনিটর।

তিন সপ্তাহ আগে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘ জানায়, ‘ফেব্রুয়ারিতে ইয়েমেন সংকট নিয়ে এক ইভেন্টে জাতিসংঘ ও মানবিক অংশীদারদের দুই কোটিরও বেশি ইয়েমেনির জরুরি প্রয়োজন মেটাতে ২৬০ কোটি ডলারের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল। আজ অবধি, এই এর অর্ধেকেরও কম হাতে পেয়েছি আমরা।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘ইয়েমেনে জাতিসংঘের ৩৪টি প্রধান মানবিক কর্মসূচির মধ্যে কেবল তিনটিই পুরো বছরের জন্য অর্থায়ন করে। বেশ কয়েকটি সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে বন্ধ হয়ে গেছে। এ ছাড়া দরিদ্র ও ক্ষুধার্ত পরিবারগুলোকে সাহায্যের জন্য অনেক বড় আকারের প্রকল্পগুলোও শুরু করা যাচ্ছে না।’

তহবিল না পেলে আগামী দুই মাসের মধ্যে আরও ২২টি প্রাণদায়ী কর্মসূচি বন্ধ হয়ে যাবে বলেও তখন জানায় সংস্থাটি। ইয়েমেনে জাতিসংঘের মানবাধিকার সমন্বয়ক লিসা গ্রান্ডে বলেন, ‘যে তহবিল দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে তা পাওয়া জন্য আমরা মরিয়া। কেননা অর্থ বরাদ্দ যদি না আসে তাহলে মানুষগুলো মারা যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই পরিস্থিতিতে আমরা সবাই লজ্জিত। এটা খুবই হৃদয়বিদারক ঘটনা নিজের চোখে এসব পরিবারকে এভাবে থাকতে দেখে তাদের বলা যে, তোমাদের সাহায্য করার মতো কোনো অর্থ আমাদের নেই।’

জাতিসংঘের মানবাধিকার সমন্বয় কার্যালয় (ওসিএইচএ) নিশ্চিত করেছে, মে মাসে বেশিরভাগ দেশে টিকা প্রদান কর্মসূচি বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে তারা।








Leave a reply