সাংবাদিক স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুক দাবির অভিযোগ স্ত্রীর

|

নড়াইলের ‘বিতর্কিত দৈনিক বিডি খবর’ এর সম্পাদক ও প্রকাশক লিটন দত্তের বিরুদ্ধে তার প্রথম স্ত্রী পপি বিশ্বাস যৌতুকের দাবিতে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছেন।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকালে নড়াইল প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পপি কান্না জড়িত কণ্ঠে তার ওপর লিটনের নানা নির্যাতনের বর্ণনা তুলে ধরে প্রশাসনের কাছে উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

পপির অভিযোগে জানা গেছে, ২০০৭ সালে সদর উপজেলার রায়খালী গ্রামের বঙ্কিম দত্তের ছেলে লিটন দত্তের সাথে তার বিবাহ হয়। বিয়ের সময় তার পরিবার লিটনকে ৪ লাখ টাকা ও ৪ ভরি স্বর্ণালংকার যৌতুক দেন, কিন্তু লিটনের লোভের সীমা ছিল না, সে আরো যৌতুকের দাবিতে পপির ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু করে। সামর্থ্য না থাকা স্বত্বেও মেয়ের সুখের কথা ভেবে পপির পরিবারে বিভিন্ন সময় জমি বিক্রি ছাড়াও ধার দেনা করে জামাই লিটনকে অন্তত ১৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দেন। এতো কিছুর পরও লিটন দাবীকৃত অর্থ না পেয়ে চার বছর আগে দুই সন্তানসহ পপিকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

দু’সন্তানকে নিয়ে পপি নিদারুণ কষ্টে দিন যাপনের বর্ণনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে বলেন, ঔরসজাত সন্তানদের কথা ভেবেও পাষণ্ড লিটনের মনে মমতার উদ্রেক হয়নি। একটি বারের জন্যও সে সন্তানদের খোঁজ নেয়নি।

অভিযোগে পপি আরো উল্লেখ করেন, স্বামী লিটন একদিন নিজের ভুল বুঝতে পেরে দুই সন্তানসহ তাকে গ্রহণ করে নেবে এই আশায় থেকে থেকে তিনি লিটনের বিরুদ্ধে এতো দিন কোন অভিযোগ করেননি। এদিকে এক বিবাহিত মহিলাকে বিয়ে করে শহরের রূপগঞ্জে ভাড়া বাসায় বসবাসরত লিটনের সঙ্গে গেল ৮ সেপ্টেম্বর দেখা করতে গেলে লিটনের সাঙ্গপাঙ্গও তাকে লাঞ্ছিত করে তাড়িয়ে দেয়। অবশেষে ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গিয়ে মুখ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি।

সংবাদ সম্মেলনে এছাড়াও পপি লিটনের নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড তুলে ধরে তার প্রতি অন্যায়ের প্রতিকার পেতে বিবেকবান সাংবাদিক মহলের সহায়তা কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিটন দত্তের ১০ বছর বয়সী ছেলে দিপ্র ও ৬ বছরের মেয়ে জয়িতা মায়ের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও লিটন দত্তের বিরুদ্ধে পত্রিকাকে পুঁজি করে, চাঁদাবাজিসহ অবৈধ পন্থায় অর্থ হাতানোর ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে লিটন দত্তের কথা জানতে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।








Leave a reply