যে ৫ কারণে খাবারে গরম মশলা ব্যবহার করবেন

|

রান্নাকে সুস্বাদু করার জন্য বিভিন্ন ধরেনের গরম মশলা ব্যবহার করা হয়। এর মধ্যে লবঙ্গ, দারুচিনি, জিরা, জায়ফল, গোলমরিচ, এলাচ, এবং তেজ পাতা অন্যতম। এ মশলাগুলো খাবারের স্বাদ বৃদ্ধির পাশাপাশি স্বাস্থ্যের জন্যও অনেক উপকারি। এর মধ্যে অন্যতম স্বাস্থ্য গুণ হচ্ছে হজম শক্তি বৃদ্ধি করা।

এ সম্পর্কে ভারতীয় পুষ্টিবিজ্ঞানী ডা. রুপালি দত্ত বলেন, গরম মশলার কোনও নির্দিষ্ট রেসিপি নেই। বিভিন্ন খাবারে আপনি ইচ্ছামতো তা ব্যবহার করতে পারেন। তবে কতটা পরিমাণ ব্যবহার করছেন সেটা গুরুত্বপূর্ণ। গরম মশলার মধ্যে লবঙ্গ, দারুচিনি, জিরা, জায়ফল, গোলমরিচ, এলাচ, এবং তেজ পাতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিম্নে গরম মশলার কিছু উপকারী দিক তুলে ধরা হলো-

১) হজমের সহায়ক

গরম মশলা পাকস্থলী থেকে বিভিন্ন উপকারী রস নিঃসরণে সাহায্য করে যা হজমের সহায়ক। গরম মশলার মধ্যে লবঙ্গ এবং জিরা অ্যাসিডিটি প্রতিরোধে সাহায্য করে। মরিচ এবং এলাচ হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

২)মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে

গরম মশলা ফাইটোনিউট্রিয়েন্টসে সমৃদ্ধ, যা বিপাক ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।গরম মশলায় থাকা বিভিন্ন খনিজ পদার্থ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের কার্যকারিতা উন্নত করতে সাহায্য করে।

৩) অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ

গরম মশলায় থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট চামড়ার সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

৪) পেট ফাঁপার সমস্যা কমায়

ডা. রূপালী দত্তের মতে, গরম মশলা হজম ক্ষমতা বাড়ায়, পেট ফাঁপা, পেট ফোলা এমনকি বমি বমি ভাব কমাতেও সাহায্য করে।

৫)মুখের দুর্গন্ধ কমায়

গরম মশলার মধ্যে লবঙ্গ এবং এলাচ মুখের দুর্গন্ধ রোধ করে।

অনেকে মনে করে গরম মশলা হজমের ক্ষতি করে। কিন্তু ডা. দত্তের মতে, একজন সুস্থ ব্যক্তির পক্ষে গরম মশলা না খাওয়ার কোনও কারণ নেই। তবে কারো যদি আলসারের মত নির্দিষ্ট শারীরিক সমস্যা থেকে থাকে তবে কিছু কিছু গরম মশলা এড়িয়ে চলা ভালো।








Leave a reply