মুঠোফোনের খারাপ প্রভাব থেকে নিজেকে কিভাবে দূরে রাখবেন

|

ফোন এখন আমাদের নিত্য সঙ্গী। বন্ধু-বান্ধবদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ হোক বা কোন বিষয় অনুসন্ধান, সবেতেই আমরা মুঠোফোনে নির্ভর করে থাকি।

 এইভাবে, অনেক সময় আমরা লক্ষ্য করতে পারি না যে আমাদের সাথে সারাক্ষণ থাকা আমাদের এই নিত্য সঙ্গীটি আমাদেরই, স্বাস্থ্যের উপর কতটা খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই আসুন, কীভাবে স্মার্টফোনের খারাপ প্রভাব থেকে দূরে থাকতে পারবেন, তা জানুন।

 পেছনের পকেটে ফোন রাখবেন না
আপনি যদি আপনার ফোনটি পেছনের পকেটে রাখেন তবে বিকিরণের ঝুঁকি খুব বেশি।  এর কারণে, পায়ে ব্যথার সমস্যাও দ্বিগুণ হয় কারণ ব্যাক পকেটে যুক্ত শিরা দমন করার কারণে এই সমস্যা দেখা দেয়। দ্বিতীয়ত, ফোনটি পেছনের পকেটে রাখলে ফোন ভাঙার ঝুঁকিও বাড়ে।

প্যান্টের সামনের পকেটে ফোন রাখবেন না
একটি গবেষণা আরও প্রকাশ করেছে যে, প্যান্ট বা ট্রাউজারের সামনের পকেটে স্মার্টফোন রাখা শুক্রাণুর সংখ্যা হ্রাস করতে পারে এবং এর গুণমানকেও উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত করতে পারে।

 শার্টের পকেটও নয়
 শার্টের পকেটে স্মার্টফোন রেখেও আপনি অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন।  এটি আপনার হৃদ রোগের ঝুঁকি বাড়াতে পারে কারণ এর থেকে বেরিয়ে আসা রেডিয়েশনের ফলে হৃদয় খুব বেশি প্রভাবিত হয়।

 বালিশের নীচে ফোন রাখবেন না
এটি অনেক লোকের মধ্যে দেখা যায়, তারা তাদের ফোনটি বালিশের নীচে রাখেন।  এটি বিকিরণের ঝুঁকি বাড়ায় এবং একই সাথে, যদি তারা তাদের ফোনের নেট উন্মুক্ত রাখে তবে রেডিয়েশনের ঝুঁকি দ্বিগুণ হয়ে যায়।  আপনি যদি দীর্ঘকাল এটি করেন তবে আপনার মাথা ব্যথা বা মাথা ঘোরার সমস্যাও হতে পারে।








Leave a reply