মুখে মাস্ক না পরার অপরাধে একটি ছাগলকে গ্রেপ্তার করল যোগী পুলিশ

|

সারা দেশের বহু জায়গায় মাস্ক ছাড়া ঘুরে বেড়াচ্ছে মানুষ। পুলিশের কোনও প্রকার ভ্রূক্ষেপ নেই। কিন্তু যোগী পুলিশের কর্তব্য পালনের দৃঢ়তা দেখলে আপনি হাসবেন না হাততালি দেবেন, সেটা আপনার ব্যাপার। মুখে মাস্ক পরেনি বলে একটি ছাগলকে থানায় ধরে নিয়ে গেল কানপুরের বেকনগঞ্জের পুলিশ কর্মকর্তা।
ছাগলের মালিক খবর পেতেই ছুট্টে থানায় গিয়ে হাজির। অনেক কাকুতি মিনতি করায় ছাগলকে জামিনে মুক্তি দেয় পুলিশ। আর হুশিয়ার করে দেয়, যেন এভাবে রাস্তায় পশুদের রাস্তায় বেরতে না দেয়। কে জানে বাবা, নাহলে থার্ড ডিগ্রিও প্রয়োগ করতে পারত পুলিশ। বড়ই নিষ্ঠুর!‌ তা ছাগলটি কোথা থেকে পাবে মাস্ক?‌ কেনার পয়সা থাকলে তো!‌ 


সপ্তাহান্তে এই অদ্ভূত ঘটনাটি ঘটে বেকনগঞ্জে। একটা ছাগলকে মাস্ক ছাড়া ঘুরে বেরাতে দেখে পুলিশের জিপে করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। আনওয়ারগঞ্জের সার্কেল অফিসার সইফুদ্দিন বেগ জানালেন, ছাগলটির সঙ্গে একজন যুবক মাস্ক ছাড়াই ঘুরছিলেন। পুলিশ দেখে ছাগলটিকে ছেড়ে পালিয়ে যায় সে। তখনই ছাগলটিকে তুলে আনে পুলিশ। কিন্তু যে পুলিশ কর্মী ছাগলটিকে তুলে এনেছিলেন তাঁর বক্তব্য, ‘‌কেন ছাগল মাস্ক ছাড়া ঘুরে বেড়াবে?‌ পোষা কুকুরদের যখন মাস্ক পরানো হচ্ছে, তখন ছাগলের মুখ খোলা থাকবে কেন?‌’‌ ঠিকই তো। সংক্রমণ তো তাদেরও হতে পারে। কিন্তু মজর ব্যাপার হল, যেই এই ঘটনাটি ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির রোল ওঠে, তখনই পুলিশের বয়ান বদলে যায়। মাস্ক না পরে থাকার জন্য যে ছাগলটিকে তুলে আনা হয়েছিল, সেই কারণটিকে চেপে রেখে অন্য কথা বলতে থাকে পুলিশ। 








Leave a reply