বাসায় অক্সিজেন সিলিন্ডার কিভাবে নিরাপদে ব্যবহার করবেন

|

অক্সিজেন নিজে জ্বলে না, কিন্তু এটি ছোট স্ফুলিঙ্গ অথবা আগুনের শিখার সংস্পর্শে আসলে খুব দ্রুত আগুন ছড়াতে পারে। তাই ঘরে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহারের সময় আপনাকে সবসময় সতর্ক থাকতে হবে। এখানে দুর্ঘটনা এড়াতে অক্সিজেনের নিরাপদ ব্যবহার সম্পর্কে উল্লেখ করা হলো।

* আগুনের কাছে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করবেন না। আগুন থেকে ন্যূনতম ১০ ফুট দূরে থাকুন। এ সময় আপনার পাশে যেন কেউ ধূমপান না করে ও মোমবাতি না থাকে। যে ঘরে আগুন জ্বলছে সেখানে অক্সিজেন সিলিন্ডার রাখবেন না বা ব্যবহার করবেন না।

* অক্সিজেন ব্যবহারের সময় এমন পোশাক পরে থাকা উচিত নয় যা ঘর্ষণে স্ফুলিঙ্গ সৃষ্টি করে। এ সময় আশপাশে কেউ যেন এমন জিনিস নিয়ে কাজ না করেন যা পরস্পরের ঘর্ষণে স্ফুলিঙ্গ তৈরি করে।

* অক্সিজেন সিলিন্ডারকে সবসময় নিরাপদ স্থানে খাড়াভাবে রাখুন। সিলিন্ডারটিকে স্ট্যান্ডে ভালোভাবে রাখুন, অন্যথায় এটি পড়ে গিয়ে ভালভ ঢিলা হয়ে যেতে পারে ও চাপিত অক্সিজেন সিলিন্ডারটিকে বিপজ্জনক মিসাইলে পরিণত করতে পারে, অর্থাৎ ভয়ংকর বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

* বাতাস চলাচল করতে পারে এমন স্থানে অক্সিজেন সিলিন্ডার রাখুন। সিলিন্ডারে যেন সূর্যের আলো সরাসরি না পড়ে।

* অক্সিজেন থেরাপির সময় কেউ যেন পাশে ইলেক্ট্রিক রেজার ব্যবহার না করেন। এগুলো স্ফুলিঙ্গ সৃষ্টি করতে পারে।

* নিয়মাবলি জেনেই অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করুন, যেমন- ভালভ সঠিকভাবে খোলা ও বন্ধ করা।

* ক্লিনিং ফ্লুইড, পেইন্ট থিনার ও অ্যারোসল স্প্রে’র মতো দাহ্য সামগ্রী ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। তৈলাক্ত, চর্বিযুক্ত ও পেট্রোলিয়াম ভিত্তিক স্কিন প্রোডাক্টও ব্যবহার করবেন না, যেমন- ভ্যাসলিন।

* যে রুমে অক্সিজেন সিলিন্ডার রেখেছেন সেখানে ‘আগুন জ্বালাবেন না, বিস্ফোরণ ঘটবে’ অথবা ‘ধূমপান করবেন না, বিস্ফোরণ ঘটবে’ প্রকৃতির লেখা সাঁটিয়ে দিন।

* ব্যবহার শেষে অক্সিজেন ইকুইপমেন্টকে তাপের যাবতীয় উৎস থেকে দূরে রাখুন।

* অক্সিজেন লিক করছে কিনা নিয়মিত চেক করুন। অক্সিজেন লিকের শব্দ শুনলে ঘরের সকল আগুন নিভিয়ে ফেলুন ও দরজা-জানালা খুলে দিন।

* অক্সিজেন ইক্যুইপমেন্টের সার্ভিস নম্বর লিখে রাখুন, ত্রুটি হলে প্রয়োজনে যেন কল করতে পারেন।

* স্মোক ডিটেক্টর সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা নিশ্চিত হোন। প্রয়োজনে নতুন ব্যাটারি লাগিয়ে নিন।

* ঘরে আগুন লাগলে আতঙ্ক ছাড়াই নিরাপদে বেরিয়ে আসার ব্যবস্থা করে রাখুন।

* নিকটস্থ ফায়ার সার্ভিসের কনটাক্ট নাম্বার মুখস্ত করে রাখুন, যেন দুর্ঘটনাবশত অগ্নিকাণ্ডে অবিলম্বে কল করতে পারেন।








Leave a reply