কুমড়োর বীজের স্বাস্থ্যকর উপকারিতা –

|

শাকসবজি বা ফল খাওয়ার আগে আমরা প্রায়শই বীজ ফেলে দিই যা প্রকৃত পক্ষে স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। এর মধ্যে একটি উদ্ভিজ্জ কুমড়া, যার বীজ হল ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে হৃদরোগ থেকে মুক্তি দেয়। কিছু পুষ্টি কুমড়োর বীজে পাওয়া যায়, যা অন্য কোনও বীজে খুব কমই পাওয়া যায়। খনিজ এবং দস্তা সমৃদ্ধ কুমড়োর বীজ পুরুষ হরমোন বৃদ্ধিতেও কার্যকর, যার কারণে তারা বিশেষত পুরুষদের জন্য উপকারী। কুমড়োর বীজ অর্থাৎ কুমড়োর বীজের সুবিধা সম্পর্কে এখানে জানুন।

১. হৃদয় তৈরির স্বাস্থ্য: কুমড়োর বীজে প্রচুর ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায় যা হৃৎপিণ্ডকে সুস্থ ও সচল রাখতে সহায়তা করে শুধু এটিই নয়, এটি উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাও নিয়ন্ত্রণ করে।

২. প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখুন: এই বীজে পর্যাপ্ত পরিমাণে জিঙ্ক পাওয়া যায়।  এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শরীরকে সব ধরণের রোগের ঝুঁকির হাত থেকে বাঁচায়। এটি ছাড়াও হতাশা থেকে মুক্তি দেয়।

৩. পুরুষদের জন্যও উপকারী: প্রোস্টেট গ্রন্থির কার্যক্রমে শরীরে জিংকের উচ্চ মাত্রা থাকা খুব জরুরি। এ জাতীয় পরিস্থিতিতে কুমড়োর বীজ পুরুষ হরমোন বাড়াতে কাজ করে। যদি পুরুষদের মধ্যে জিঙ্কের মাত্রা হ্রাস পায়, তবে তাদের শুক্রাণুর গুণমান হ্রাস হওয়ার ভয় রয়েছে।

৪. ডায়াবেটিস রোগ: স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের মতে কুমড়োর বীজ ইনসুলিনের পরিমাণ ভারসাম্যপূর্ণ করার জন্য কাজ করে। যদি আপনার চিনির স্তরটি ফিশযুক্ত হয় তবে নিয়মিত ডায়েটে কুমড়োর বীজ গ্রহণ করুন।

৫. অনিদ্রা রোধ করুন: আপনার ঘুম যদি ঘন ঘন ব্যাঘাত ঘটে তবে ঘুমের আগে কুমড়োর বীজ খাওয়া শুরু করুন। এটি ট্রাইপটোফান এবং অ্যামিনো অ্যাসিড সমৃদ্ধ যা ঘুম পুনরুদ্ধারে সহায়তা করে।








Leave a reply