ধূমপান কিভাবে ছাড়বেন জেনেনিন সহজ ৮টি উপায়

|

ধূমপান স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর। ধূমপান মৃত্যুর কারণ, ধূূমপান ক্যান্সারের কারণ । এগুলো সিগারেটের প্যাকেটে লিখা থাকে তবুও আমরা সিগারেট টানছি নিয়মিত। অ্যামেরিকান স্বাস্থ সংস্থার মতে ১ বছরে একজন ব্যক্তির ৫০০০ সিগারেট পান করে। হিসেব করে দেখুন কত টাকা চলে যায়!। বিনিময়ে পাচ্ছি নানা রোগ । এগুলো আমরা সবাই বুঝি কিন্তু কেও ছাড়ছিনা। অনেকে ছাড়ার চেষ্টা করছেন কিন্তু সফল হতছেন না। তাদের জন্য নিয়ে আসলাম ৮ টি কার্যকারি পদ্ধতি। যা আপনাকে ধূমপান ত্যাগ করতে সহযোগিতা করবে।

১। দিন তারিখ নির্ধারন করেন
সিগারেট ছাড়ার জন্য আগে পরিকল্পনা করুন, তারপর একটা দিন ঠিক করে সকল সিগারেট ছুড়ে ফেলুন। নিজের সাথে প্রতিজ্ঞা করুন এই দিন থেকে আর সিগারেট খাবেন না। বিশ্বাস রাখুন আপনি পারবেন।।

২। খোলা বাতাসে ঘোরাঘুরি করুন
সিগারেট টানে শরীরে সাময়িক ভালো লাগা তৈরি হতে পারে। মুক্ত বাতাসে ঘোরাঘুরি করে সে জায়গাটা পূরণ করা যায়। আপনি যখন খোলা বাতাসে ঘোরাঘুরি করবেন তখন আপনার ফুসফুস ভালোভাবে কাজ করবে। মস্তিষ্ক চাপ থেকে মুক্তি পাবে। ফলে শরীরে ভালো লাগা তৈরি হবে।

৩। শাক- সবজি ও ফল খান বেশি করে
গবেষণায় দেখা যায় যারা দিনে ৩-৪ বার শাক সবজি খায় তাদের চেয়ে যারা ২ বারের কম খায় তাদের সিগারেট ছাড়া কঠিন । আর কম কযলরি যুক্ত খাবার যেমন মদ, কফি খাওয়া কমিয়ে দিন। তাই দিনে অধিক পরিমান শাক সবজি খান। এবং প্রতিজ্ঞার কথা মাথায় রাখুন আপনি সিগারেট ছাড়তে পারবেন সহজে।

৪। স্বাস্থ্যসম্মত বিকল্প
অনেকে সিগারেটের বিকল্প হিসেবে চকলেট খাওয়া আরম্ভ করে। তবে এটি কখনোই স্বাস্থ্যসম্মত নয়। আবার অনেকে জল খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তবে সিগারেটের বিকল্প হিসেবে চুইংগাম বা অ্যাপেল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা যেতে পারেন।

৫। ধূমপানে আসক্ত পরিবেশ বর্জন করুন, ব্যস্ত থাকার চেষ্টা করুন
ধূমপান করে না এমন বন্ধুদের সঙ্গে মিশুন: ধূমপান ছাড়ার অন্যতম উপায় হচ্ছে যেসব বন্ধুরা ধূমপানে অভ্যস্ত না তাদের সঙ্গে চলাফেরা করা। প্রয়োজনে ধূমপান পছন্দ করেন না- এমন নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলুন। তার চাওয়া পাওয়াকে প্রাধান্য দিন।সব সময় বিজি থাকুন। ঘুরতে যান। ছবি তুলুন। এ কাজ গুলো আপনাকে ধূমপান ছাড়তে সাহায্য করবে।

৬। একা না থাকার চেষ্টা করুন
আপনি যখন অধিক পরিমাণে ক্ষুধার্ত, ক্রুদ্ধ, ক্লান্ত বা একাকী অনুভব করেন সাধারণত তখনি আপনি ধূমপানের প্রতি বেশি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন। তাই এমন পরিস্থিতি এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।আপনি ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার জন্য উপযুক্ত পরিবেশে নিশ্চিত করুন।

৭। কয়েক মাসের জন্য অ্যালকোহল ও কফিকে না বলুন
অ্যালকোহল এবং কফি সিগারেটের প্রতি ঝোঁক বারিয়ে দেয় তাই মনস্থির করার পর কয়েক মাস কফি এবং অ্যালকোহল থেকে দূরে থাকুন।

৮। আকুপাংচার পদ্ধতি অবলম্বন
প্রয়োজনে আকুপাংচার পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। ধূমপান ছাড়তে এটি কার্যকরী কৌশল। আকুপাংচর হচ্ছে শরীরে সূঁচ ফুড়ে নিজে নিজেই ব্যথা অনুভব করা। এতে আসক্তির ঘোর কেটে যাবে।

সিগারেট ছাড়ুন সুস্থ থাকুন।








Leave a reply