ঝটপট নাস্তায় মাফিন

|

বিদেশে সকালের নাস্তায় ব্যাপক জনপ্রিয় মাফিন। মাফিন সাধারণত মিষ্টি ও নোনতা দু’রকমের হয়। আবার ভিন্ন ভিন্ন দেশে মাফিন খাওয়ার পদ্ধতিও ভিন্ন। আমেরিকায় ঈস্ট, নানা উপকরণ মেশানো ময়দা বেক করে দিব্যি খাওয়া হয়। আর ইউরোপে কখনও কখনও মাফিন বেক করে মাঝখান থেকে দু’টুকরো করে পুনরায় টোস্ট করা হয়। মাফিন শুধু নাস্তায় নয়, বাচ্চার স্কুলের টিফিনে কিংবা অফিসে খাওয়ার জন্যও উপযুক্ত। কারণ সুস্বাদু ও পুষ্টিকর এই খাবারটি বানানো যায় কম সময়ে।

উপকরণ:

ময়দা— ১ কাপ,চিনি— ৩/৪ কাপ,ডিম— ১টি,দুধ— ৪ টেবিল চামচ,আনসল্টেড মাখন— ৫০ গ্রাম,বেকিং পাউডার— ১ চা চামচ
,বেকিং সোডা— আধ চা চামচ,.ভ্যানিলা এসেন্স— ১ চা চামচ,জায়ফল গুঁড়ো— এক চিমটে,দারুচিনি গুঁড়ো— এক চিমটে,কিশমিশ— ১ টেবিল চামচ,আমন্ড— ১ টেবিল চামচ,মধু— প্রয়োজন মতো
প্রণালী:

একটি বড় পাত্রে ময়দা, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা, বেকিং পাউডার, লবণ এক সঙ্গে চেলে নিন। এবার মিশ্রণে দারুচিনি গুঁড়ো ও জায়ফল গুঁড়ো মেশান। চিনি গুঁড়িয়ে রাখুন। এ বার অন্য একটি পাত্রে ডিম ফেটিয়ে নিন। মাখন ঘরের তাপমাত্রায় নিয়ে আসুন। এখন মাখন, গুঁড়ো চিনি ও ডিম এক সঙ্গে ফেটিয়ে নিন। খেয়াল রাখবেন তাতে যেন কোনও ডেলা না জমে থাকে। সেই মিশ্রণে দুধ ও ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে আরও এক বার ফেটিয়ে নিন। কিশমিশ ও আমন্ড কুচি করে রাখুন। এরপর ময়দার মিশ্রণ ধীরে ধীরে ডিমের মিশ্রণের সঙ্গে ভাল করে মেশান। তাতে কিশমিশ ও আমন্ড কুচি দিন। এবার মাফিনের টিনের ভিতরে হাল্কা করে মাখন লাগিয়ে নিন। তবে বাটার পেপার থাকলে শুধু পেপারই দিতে পারেন। মাফিনের মিশ্রণ ওই টিনে ঢেলে দিন। খেয়াল রাখবেন যেন টিনের ২/৩ অংশই ভর্তি থাকে। উপর থেকে আরও কয়েকটি কিশমিশ ছড়িয়ে দিন। ওভেন ১৮০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় প্রি-হিট করুন। ২০ মিনিট ধরে মাফিন ওই তাপমাত্রায় বেক করুন। একটি বাটিতে মধু ও সামান্য দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে রাখুন। মাফিনের উপরে দারুচিনি গুঁড়ো মেশানো মধু ছড়িয়ে পরিবেশন করুন। ইন্টারনেট থেকে।








Leave a reply