সদয় হলে কি দীর্ঘজীবি হওয়া যায়?

|

মানুষের প্রতি দয়ালু হলে কি লাভ হবে? বিশেষ এক অনুভূতি হয়তো মনের ভিতর শিহরণ জাগাবে । হয়তো এটা সত্য তবে বিজ্ঞানীরা নতুন এক গবেষণায় দাবি করছে এটা আপনাকে দীর্ঘজীবি করতে পারে!

বেদারি কাইন্ডনেস ইন্সটিটিউট বলছে তারা বিজ্ঞানসম্মতভাবে এ সিদ্ধান্তে উপনিত হোন। তারা মনোবিদ্যা, জীববিদ্যা ও সামাজিক অনুভূতি নিয়ে কাজ করেছেন। বিশ্বদয়া দিবস উপলক্ষ্যে প্রকাশিত এ রিপোর্টে তারা বলছে দয়া সাধারন কোন বিষয় নয়, দিনশেষে এটা জীবন-মৃত্যুর প্রশ্ন।

মানুষ সদয় কর্মকান্ড দেখে দয়া শিখে এবং বাস্তব জীবনে সে অনুযায়ি কাজ করে থাকে। তারা বলছে বর্তমানে আমরা অপেক্ষাকৃত নির্দয় এক সমাজে বসবাস করছি। যেখানে রাজনৈতিক ও ধর্মীয়সহ নানা ইস্যুতে মানুষের মাঝে অস্থিরথা বাড়ছে।

দয়া হলো-চিন্তা,অনুভূতি ও বিশ্বাস যখন অন্যের ভালো কামনা করবে তখন তার ফল অসমাপ্ত থেকে যাবে। অন্যদিকে, নির্দয়তা হলো অন্যের চিন্তাকে সহ্য না করা এবং অপরের ভালোর প্রতি গুরুত্ব না দেয়া।

২০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করে এ বিয়ষে গবেষণা করা হচ্ছে। বলা হয় দয়া মানুষের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং যা কখনো ঔষধ দিয়ে এতটা স্বাভাবিক রাখা যায় না।

দয়ালু হওয়ার কৌশল:
১. প্রথমে অন্যের কথা মনযোগ দিয়ে শ্রবণ করা, মাথায় জবাব তৈরী করার পরিবর্তে।
২. দয়ার সাথে বন্ধু মনে করে জবাব দেয়া।জীবনের প্রতি উৎসাহিত করা।
৩. পাশে কেউ থাকলে তাকেও অন্তর্ভূক্ত করা, তাকে মূল্যায়ন করা।
৪. প্রতিক্রিয়া দেওয়ার সময় নিজের প্রতি খেয়াল রাখা, রাগ থাকলে জোড়ে শ্বাস নিয়ে সময় নেয়া।








Leave a reply