মাইগ্রেন ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়ার ৬ টোটকা

|

মাইগ্রেন এখন বেশিরভাগ মানুষের অন্যতম প্রধান সমস্যা।এই সমস্যা হয় কখনও বংশ পরম্পরায় আসে। আবার কখনও টেনশন, ভয় থেকেও জন্ম নেয়। অনেক সময় সাইনাস থেকেও আসে মাইগ্রেন। এই রোগ থেকে মুক্তি পেতে অনেকে নানা ধরণের ওষুধ খান। কিন্তু সবসময় ওষুধ না খেয়ে বাড়িতে কিছু খাদ্য ও কিছু করণীয়ের মাধ্যমে উপকারিতা পাওয়া যেতে পারে। নিম্নে সেই সব খাদ্য ও কিছু করণীয় সম্পর্কে তুলে ধরা হলো-

১) আঙুরের রস-

মাইগ্রেনের ওযুধ হিসেবে বেশ ভালো কাজ করে আঙুরের রস। টাটকা আঙুরের রস জলের সঙ্গে মিশিয়ে দিনে দুবার করে খান। এতে থাকে ফাইবার, ভিটামিন এ ও সি। তার সঙ্গে থাকে যথেষ্ট পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট। এই উপাদানগুলি মাইগ্রেনের যন্ত্রণা দূর করতে পারে।

২) আদা-

আদার অনেক গুণ। তার মধ্যে একটি মাইগ্রেন থেকে মুক্তি। পাতিলেবু ও আদার রস মিশিয়ে চা খান। মাইগ্রেনের যন্ত্রণার উপশম হতে পারে। শুধু মাইগ্রেন নয়। আরও অনেক সমস্যা থেকেও মুক্তি দিতে পারে আদা।

৩) দারুচিনি-

শুধু খাবারে স্বাদই জোগায় না দারুচিনি। এর এমন অনেক গুণ রয়েছে, যা আমাদের অনেকেরই অজানা। তেমনই একটি হলো মাইগ্রেনের উপশমকারী ওষুধ। দারুচিনি বেটে সেটি জলের সঙ্গে মিশিয়ে কপালে লাগান। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা দূর হতে পারে।

৪) ক্যাফেইন-

অল্প মাত্রায় ক্যাফেইন মাইগ্রেনের যন্ত্রণা আয়ত্তে আনতে পারে। তবে যারা কফিতে আসক্ত, তাদের ক্ষেত্রে এর কোনও প্রভাব পড়বে না। কিন্তু যারা কফি খান না, তাদের জন্য ক্যাফেইন ওষুধ হয়ে উঠতে পারে। মাইগ্রেনের ব্যথার সময় কফি খেলে তা কিছুটা কমার সম্ভাবনা থাকে।

৫) আলো থেকে দূরে থাকুন-

মাইগ্রেনের ব্যথা হলে তীব্র আলো এড়িয়ে চলুন। আলোর প্রভাবে মাথা ব্যথা বাড়তে পারে। এই সময় চেষ্টা করুন অন্ধকারে চোখ বন্ধ করে বিশ্রাম নেওয়ার।

৬) ম্যাসাজ

মাইগ্রেনের ব্যথা কমাতে ম্যাসাজের কোনও জুড়ি নেই। কপাল, চোখের ওপর ও ঘাড়ে ম্যাসাজ করুন। এতে যন্ত্রণার তীব্রতা কমবে।

তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন (কলকাতা)।








Leave a reply