ভ্রুর চুল বাড়ানোর সেরা উপায়

|

চোখের সৌন্দর্যের জন্য ভ্রু বৃদ্ধির পুনরুদ্ধার করা প্রয়োজন। ভ্রু আকার নির্ধারণ করা কেবল তখনই সম্ভব যখন ভ্রু যথেষ্ট ঘন হয়। ভ্রু চুল যদি দুর্বল এবং পাতলা হয় তবে ভ্রু সেট করা এবং তৈরি করা কঠিন। ভ্রু চুল দুর্বল এবং পাতলা হয়ে গেলে ভ্রুও দেখতে ভাল লাগে না। চোখের সৌন্দর্য এবং চেহারা উন্নত করতে, ভ্রু বৃদ্ধির সেরা টিপস এবং তেল প্রয়োজন।
এখানে আমরা এমন কয়েকটি তেল কথা বলছি যা ভ্রু চুলকে শক্ত এবং ঘন করে তোলবে। আসুন জেনে নিই ভ্রু গ্রোথ টিপস যা আপনার চোখে নতুন চেহারা দেয়

ভ্রু বৃদ্ধির জন্য ক্যাস্টর অয়েলঃ
স্বাস্থ্যের জন্য ক্যাস্টর অয়েল এর সুবিধা অনেকগুলি। চুলের বৃদ্ধি এবং শক্তি জন্যও ক্যাস্টর অয়েল ভাল। ক্যাস্টর অয়েল কিছু লোকের ত্বকে চুলকানিও সৃষ্টি করে। এই ক্ষেত্রে, ভ্রুতে প্রয়োগ করার আগে একটি ত্বক পরীক্ষা করুন। চুলের শক্তিশালী বৃদ্ধির জন্য ক্যাস্টর অয়েল সবচেয়ে ভাল। সুন্দর ভ্রু পেতে সর্বশেষতম উপায়।

জলপাই তেলঃ
ত্বকের যত্ন এবং চুলের যত্নে জলপাইয়ের তেলের যোগ নেই। অলিভ অয়েলে ভিটামিন এ এবং ই পাওয়া যায়। চুল জোরদার করতে জলপাইয়ের তেল ভ্রুতে লাগাতে হবে। এক সপ্তাহ ধরে অলিভ অয়েল লাগিয়ে ভ্রু ঘন করা হয়। এখানে জলপাই তেল দিয়ে ম্যাসেজ করার সুবিধা শিখুন।

বাদাম তেলঃ
চুল পড়া রোধ করতে বাদামের তেল ব্যবহার করা হয়। চুলকে শক্তিশালী করে তোলে ভিটামিন ই, বাদামের তেলে পাওয়া যায়। বাদামে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বক এবং চুলের জন্য খুব ভাল। ঘন এবং সুন্দর চুলের জন্য বাদামের তেলের সাথে ভ্রু ব্যবহার করা উচিত। চুলের জন্য কোন তেল ভাল? নারকেল তেল বা বাদাম তেল

নারকেল তেলঃ
নারকেল তেল চুলের যত্নে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। আপনার ভ্রুতে ছোট চুল থাকলে অবশ্যই নারকেল তেল লাগাতে হবে। নারকেল তেল একটি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার। হালকা নারকেল তেল মালিশ করতে হবে।








Leave a reply