জেনে নিন লেবুর খোসার ৩টি অজানা তথ্য

|

লেবুর উপকারিতা সম্পর্কে আমরা কমবেশি সবাই জানি।নিয়মিত লেবুর রস খেলে আমাদের মেদ কমে যায়।আমরা অনেকেই হয়ত এটা জানিনা যে লেবুর খোসাতেও রয়েছে অনেক উপকারিতা রয়েছে,গৃহস্থালি থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত পরিচর্যা সবেতেই কাজে লাগতে পারে এটি। নানা রাসায়নিক উপাদানের জেরে এই লেবুর খোসাও হয়ে উঠতে পারে অনেক মুশকিলের আসান।

তাই কোনো কোনো সময় চিকিৎসকরাও লেবু খাওয়ার পাশাপাশি লেবুর খোসা কুঁচিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দেন। আসুন জেনে নিই লেবুর খোসার উপকারিতা গুলো:

ওজন হ্রাস:
লেবুর খোসা ওজন কমাতে সাহায্য করে। লেবুর খোসায় থাকা ‘পেকটিন’ শরীরের অতিরিক্ত চর্বিকে ঝরিয়ে দেয়। তাই অনেকেই লেবুর খোসা থেঁতো করে সেই রস জলে মিশিয়েও খেয়ে থাকেন।

ক্যান্সার প্রতিরোধে:
পাতিলেবুর খোসার লিমোনেন্স ক্যান্সার প্রতিরোধেও সক্ষম। ক্যান্সার কোষ ধ্বংসেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই ক্যান্সার আক্রান্তদের লেবু খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা।

মানসিক চাপ:
মানসিক চাপ কমাতে অত্যন্ত কার্যকরী এই লেবুর খোসা। এতে থাকা সাইট্রাস বায়োফ্লেভোনয়েড অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমায়। ফলে সার্বিকভাবে মন-মস্তিষ্ক সতেজ হয়। লেবুর ভিটামিন সি ও সাইট্রিক অ্যাসিড ঠাণ্ডার আক্রমণ থেকে বাঁচায়। সর্দি-কাশির প্রকোপ কমাতেও কাজে আসে লেবুর খোসা।

লেবুর খোসায় আছে পলিফেনল। যা শরীরে খারাপ কোলেস্টরলের মাত্রা কমায়। লেবুর পটাশিয়াম ব্লাড প্রেসারকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। তাই হৃদরোগীকে লেবুর খোসা কুঁচিয়ে বা লেবুর খোসা গুঁড়ো করে জলে মিশিয়ে দিতে পারলে ভালো। লেবু নিজে প্রাকৃতিক স্ক্রাবার। তাই লেবুর খোসা ত্বকের মৃত কোষ ঝরিয়ে ত্বককে টানটান ও মসৃণ রাখে।








Leave a reply