হাইহিল জুতা বাতের সমস্যা বাড়ায়

|

সময়ের পরিবর্তন মানে ফ্যাশনে নতুন যোগ। ফ্যাশনের একটা ধারা ভেঙে তৈরি হচ্ছে আরেক টি। বর্তমানে তরুণী দের ফ্যাশনের অন্যতম একটি উপাদান হলো হাইহিল। সব সাজই যেন তাদের মাটি হয়ে যায়, যখন পায়ে মানানসই ফ্যাশনেবল একটি হিল না থাকে। কিন্তু এই হাইহিলের জুতা সত্যিকার অর্থে নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘদিন ধরে হাইহিল জুতার ব্যবহার বিভিন্ন অসুখের সৃষ্টি করতে পারে। হাইহিল জুতার বেশি ব্যবহার আর্থ্রাইটির (হাড়ের সংযোগে ব্যথা), অ্যাঙ্কেল পেইন (গোড়ালির ব্যথা), ডিজলোকেশন (হাড় নির্দিষ্ট জায়গা থেকে সরে যাওয়া), পায়ের আঙুলে ব্যথাসহ অনেক সমস্যা হতে পারে।

তাছাড়া এই সময়ে সৌন্দর্যের অন্যতম মাপকাঠি হিসেবে উচ্চতাকে ধরা হয়। তাই জুতার হিলের চাহিদাও বেড়ে গেছে দ্বিগুণভাবে। কিন্তু ‘সৌন্দর্যবর্ধক’ এই নিরীহ বস্তুটি নারীদের হাঁটু ও পায়ের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে।

হার্ভার্ড মেডিক্যাল স্কুলের এক গবেষণার ফলাফলে জানা গেছে- যদি কেউ দু’ইঞ্চি হিলের জুতা পরেন, তাহলে তার অস্টিও আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। এই অস্টিও আর্থ্রাইটিস খুবই যন্ত্রণাদায়ক।

এছাড়া যেসব লোক তাদের কোমর ও হাঁটুর অস্থিসন্ধিতে অবিরাম চাপ দেন বা ভার বহন করেন, তাদের অস্টিও আর্থ্রাইটিস বা গেঁটে বাতের ঝুঁকি খুবই বেশি থাকে।

গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, নারীরা হাইহিল জুতা পরে হাঁটলে তাদের কোমর ও হাঁটুর অস্থিসন্ধিতে অতিরিক্ত ওজন বহন করার মতোই চাপ পড়ে, আর এটা অস্টিও আর্থ্রাইটিসের একটা ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়।

এই গবেষণা থেকে আরও স্পষ্ট হয়েছে যে, নারীরা কেন পুরুষদের চেয়ে দ্বিগুণ পরিমাণ অস্টিও আর্থ্রাইটিসে ভুগে থাকেন। আসলে যত ঝামেলার মূলে হাইহিল জুতা।

তাই অস্টিও আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি এড়াতে গবেষকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন- সর্বদা ফ্ল্যাট হিলের জুতা পরতে। আর হাইহিল যদি পরতেই হয় তাহলে সেটা রেখে দেবেন বিশেষ কোনো অনুষ্ঠানের জন্য। অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জুতা খুলে ফেলবেন।








Leave a reply