হলুদ চায়ের ৫ গুণ

|

সময়ের যাচ্ছে এগিয়ে সামনের দিকে, সভ্যতার দিকে। পেছনে রয়ে যাচ্ছে অগ্রহণযোগ্য অনেক কিছু। তবু ইতিহাসের জীবাষ্মের উপরই বর্তমানের ইমারত দাঁড়িয়ে থাকে। তাই তো অতীতকে মুছে ফেললে বর্তমানের মূল্য যে কমে, সে কথা তাবৎ বিশ্ব মেনে নিয়েছে। সেই কারণেই তো এক সময়ে আয়ুর্বেদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়া আধুনিক সমাজ ধীরে ধীরে ভরসা ফিরে পাচ্ছে হাজার বছরের পুরানো এই চিকিৎসা বিদ্যার উপরে। আর এই ভরসা যে নেহাতই নয়, তা আরেকবার প্রমাণ করুন হলুদ চা পান করে। আসুন জেনে নেই হলুদ চা’য়ের উপকারীতা সম্পর্কে।

আর্থ্রাইটিসের কষ্ট কমে

সকাল-বিকাল মিলিয়ে দু-কাপ হলুদ চা পান করলে শরীরে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটারি উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই জয়েন্টের ব্যাথা এবং প্রদাহ কমতে শুরু করে। কারণ, হলুদে কার্কিউমিন নামে একটি উপাদানের সন্ধান পাওয়া যায়। এই উপাদানটি যে কোনো ধরনের যন্ত্রণা কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

স্মৃতিশক্তির উন্নতি

হলুদে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা রক্তে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদানদের শরীরে থেকে বার করে দেয়। ফলে ব্রেন সেল ড্যামেজের আশঙ্কা কমে। অন্যদিকে কার্কিউমিন মস্তিষ্কের বিশেষ কিছু অংশের ক্ষমতা এতটা বাড়িয়ে দেয় যে স্মৃতিশক্তি লোপ পাওয়ার আশঙ্কা কমে। সেই সঙ্গে বুদ্ধির জোরও বাড়তে থাকে।

ক্যান্সার দূরে রাখে

ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের প্রকাশ করা রিপোর্ট অনুসারে হলুদে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রোপাটিজ, শরীরে যাতে ক্যান্সার সেল জন্ম নিতে না পারে সেদিকে খেয়াল করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ক্যান্সার রোগ ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

একাধিক পুষ্টিকর উপাদানে সমৃদ্ধ হলুদ দিয়ে বানানো চা খেলে শরীরের বেশ কিছু পরিবর্তন হতে থাকে, যার প্রভাবে ধীরে ধীরে রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা বাড়তে শুরু করে। ফলে রোগমুক্ত জীবন পাওয়ার স্বপ্ন একেবারে হাতের মুঠোয় চলে আসে।

খারাপ কোলেস্টরলের মাত্রা কমায়

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে হলুদে উপস্থিত কার্কিউমিন রক্তে জমতে থাকা এল ডি এল বা খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। ফলে স্বাভাবিভাবেই হার্টের কোনো ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়। আসলে শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা যত কমতে শুরু করে, তত হার্টের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাও কমে। সেই সঙ্গে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের সম্ভাবনাও কমে।

কীভাবে বানাবেন হলুদ চা-

১. ৩-৪ কাপ পানি ফুটিয়ে নিন প্রথমে।

২. পানি ‍ফুটতে শুরু করলে তাতে ২ চামচ হলুদ গুঁড়ো মেশান। ৩. হলুদ মেশানোর পর কম করে ৫-১০ মিনিট পানি নারাতে থাকুন।

৪. পানি নামিয়ে ছেঁকে নিন।

৫. এবার অল্প করে মধু, লেবুর রস এবং দুধ মিশিয়ে নিন।

৬. আপনার হলুদ চা তৈরি। এবার গরম গরম পান করুন।

সূত্র : বোল্ডস্কাই।








Leave a reply