শীতে বাচ্চাদের ভাইরাস সংক্রমণ রোগ থেকে রক্ষা করার জন্য উপায়

|

শীতের আবহাওয়া আপনার বাচ্চাদের অনেক রোগে আক্রান্ত করে তোলে এবং এমন পরিস্থিতিতে তাদের রক্ষা করা খুব কঠিন হয়ে পড়ে। তবে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা গেলে ঠাণ্ডা থেকে রক্ষা করা যায়। সঠিক সময়ে বাচ্চাদের চিকিত্সা করা, বাচ্চাদের যত্ন নেওয়া, পরিষ্কার করা আপনার শিশুকে সুরক্ষিত রাখবে। আজকাল, শিশুদের যদি কিছুটা জ্বর বা সর্দি হয় তবে তারা খুব দুর্বল হয়ে পড়ে এবং তারা দীর্ঘকাল অসুস্থ থাকে। আসুন জেনে নিই কীভাবে শীতে শিশুরা ভাইরাল সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পেতে পারে।


কীভাবে বাচ্চাদের অসুস্থ হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করবেন
আপনার চারপাশের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার যত্ন নিন, যদি কোনও জায়গায় আবর্জনা থাকে তবে তা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিষ্কার করুন, কারণ তাদের উপর মশা, উড়ে গিয়ে আপনার বাচ্চাদের কাছে পৌঁছতে পারে এবং তাদের ক্ষতি করতে পারে। যদি আপনার ছাদের কোনায় বা ট্যাঙ্কে পানি সঞ্চিত থাকে তবে এগুলি পরিষ্কার করুন এবং নোংরা পানি জমতে দেবেন না।


সকালে এবং সন্ধ্যায়, শিশুদের খুব কমই বাসা থেকে বাইরে বের করবেন, কারণ দিনের মধ্যে বেশিরভাগ ডেঙ্গু মশা দেখা যায়। হালকা শীতের আগমনে বাচ্চাদের উষ্ণ পোশাক পরিধান করা উচিত যাতে কোনও মশা তাদের সহজে না কামড়ায়।
যাদের সর্দি হয়ছে তারা বাচ্চাদের থেকে একটি দুরত্ব রাখা উচিত যাতে তারা এর শিকার না হয়।


ধুয়ে সবজি খান এবং আপনার বাচ্চাদের বাইরের খাবার খেতে দেবেন না। আপনার বাচ্চাদের হাত ধোওয়ার অভ্যাস করুন, যাতে জীবাণুগুলি তাদের পেটে না যায় এবং তারা রোগ থেকে দূরে থাকে। আপনার শিশুদের জন্য আরও ভাল পানি পান করুন বা ফুটন্ত পানি পান করুন, কারণ এই মৌসুমে নোংরা বা অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি পান করা আপনার বাচ্চাদের ঠান্ডা হতে পারে। এইভাবে তারা অসুস্থও পড়তে পারে।


আপনার বাচ্চাদের হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল করান , কারণ শীতকালে ঠান্ডা পানিতে গোসল করালে তারা অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। ছোট বাচ্চাদের গোসলের পরে তেল দিয়ে ম্যাসাজ করা উচিত এবং ঋতু অনুযায়ী পোশাক বেছে নেওয়া উচিত।


অসুস্থ বাচ্চাদের কীভাবে যত্ন নিবেন
যদি তাদের সর্দি হয় তবে বারবার টিস্যু পেপার ব্যবহার করবেন না কারণ এটি আপনার বাচ্চাদের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারে না।


আপনার বাচ্চার যদি কোনও সংক্রমণ হয় তবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এটি ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান এবং সময়মতো ওষুধ দিতে থাকুন। আপনার শিশু যদি অনেক সময় ওষুধ খাওয়ার সাথে ভাল না থাকে তবে তার রক্ত পরীক্ষা করুন। কারণ আজকাল ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া, চিকুনগুনিয়ার মতো অনেক রোগ ছড়াচ্ছে।


সময়মতো টিকা দেওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ, যা আপনার বাচ্চাদের হুপিং কাশি, টিটেনাস, পোলিও, হামের মতো রোগ থেকে রক্ষা করে। আপনি যদি এটির যত্ন না নেন, তবে এটি আপনার বাচ্চাদের বড় রোগের শিকার করবে।


খাওয়া-দাওয়ার বিশেষ যত্ন নিন কারণ বাচ্চারা বাইরে খেতে পছন্দ করে, যা তাদের পক্ষে খুব ক্ষতিকর।


চিপস, চকোলেট, আইসক্রিমের মতো জিনিসগুলি অসুস্থতার সময় খুব ক্ষতিকারক, তাই এগুলি একেবারেই দেবেন না।


পিতামাতার বিশেষ যত্ন নেওয়া উচিত কারণ আপনি যদি অসুস্থ হয়ে পড়েন তবে এই ভাইরালটি সহজেই আপনার বাচ্চাদেরও অসুস্থ করে তুলতে পারে।








Leave a reply