রসুন এবং পেঁয়াজ দিয়ে কলোরেক্টাল ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করার উপায়

|

সাম্প্রতিক এক গবেষণার ফলাফলে এটি বলা হয়েছে যে, রসুন এবং পেঁয়াজ জাতীয় শাকসব্জী গ্রহণের ফলে অন্ত্র এবং মলদ্বারের ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস পায়। অ্যালিমেন্টারির নীচের প্রান্তে অবস্থিত বৃহত অন্ত্র এবং মলদ্বারের ক্যান্সারকে কলোরেক্টাল ক্যান্সার বলে।

এশিয়া প্যাসিফিক জার্নাল অফ ক্লিনিকাল অনকোলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণার মাধ্যমে জানিয়েছে যে, পেঁয়াজ প্রজাতির বেশি শাকসবজি গ্রহণ করে এমন ব্যাক্তির মধ্যে কলোরেক্টাল ক্যান্সারের ঝুঁকি ৯ শতাংশ কম থাকে।

চীন মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্স্ট হাসপাতালের গবেষক ঝিলি বলেছেন যে, পেঁয়াজ প্রজাতির শাকসব্জি বেশি খেলে বেশি সুরক্ষা পাওয়া যায়। তিনি বলেছিলেন, বর্তমান গবেষণার সারমর্মটি হল পরিবর্তনশীল জীবনধারা কলোরেক্টাল ক্যান্সারকে প্রথম দিকে রোধ করতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, কলোরেক্টাল ক্যান্সার সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে এবং ২০১৮ সালে এটিতে ১৮ লক্ষ লোক আক্রান্ত হয়েছিল, যার মধ্যে ৮,৬২,০০০ লোক মারা গিয়েছিল।








Leave a reply