রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজে লাগান মেথির টোটকা! ফল পাবেন হাতেনাতে

|

ভেষজ মশলা হিসেবে মেথি বীজ আমাদের সবার কাছেই বেশ পরিচিত। সেই সাধারণ মেথিরও কিন্তু আপনার ওজন কমাতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। শুধু ওজন কমানোর ক্ষেত্রেই নয়, কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে ডায়াবেটিসের মতো অসুখ নিয়ন্ত্রণে রাখতে মেথি অত্যন্ত কার্যকরী! চলুন, এ বিষয়ে সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক…

প্রথমেই এর জন্য বানিয়ে নিন মেথি চা। জেনে নিন কী ভাবে বানাবেন এই মেথি চা।
মেথি চা বানানোর পদ্ধতি:
১) ১ চামচ মেথি গুঁড়ো।
২) দেড় কাপ ফুটন্ত গরম জলে ওই গুঁড়ো মিশিয়ে দিন।
৩) এর সঙ্গে ১ চামচ মধু মেশাতে পারেন। চাইলে এর সঙ্গে চা পাতা বা তুলসী পাতাও মেশাতে পারেন।
৪) সমস্ত উপকরণ একসঙ্গে দিয়ে মিনিট পাঁচেক ফুটিয়ে নিন।
৫) এ বার ছেঁকে নিয়ে সামান্য ঠান্ডা করে চুমুক দিন মেথি চায়ে।

মেথি চায়ের উপকারিতা:

১) অ্যাসিডিটি বা হজমের যাবতীয় সমস্যা সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে মেথি চা। এ ছাড়াও মেথিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার যা পেট পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূরে রাখতে সাহায্য করে।
২) প্রতিদিন সকালে খালি পেটে মেথি চা খেতে পারলে কোলেস্টেরল থাকে নিয়ন্ত্রণে। ফলে হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভাল থাকে। কমে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি।
৩) সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে মেথি চা অত্যন্ত কার্যকরী! পুষ্টিবিদ ডঃ অঞ্জু সুদের মতে, ইনসুলিনের কার্য ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে মেথি চা। ফলে, ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা সহজেই দূরে সরিয়ে রাখা যায়।
৪) ওবেসিটি সমস্যা বা শরীরের অতিরিক্ত ওজন দ্রুত কমাতে মেথি চায়ের জুড়ি মেলা ভার! সকালে খালি পেটে ১ কাপ মেথি চা নিয়মিত খেতে পারলে বাড়বে হজম ক্ষমতা একই সঙ্গে ঝরবে মেদও।
৫) প্রতিদিন সকালে খালি পেটে মেথি চা খেতে পারলে কিডনি পরিষ্কার থাকে। পেটে মেথি চা খেতে পারলে কিডনিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।








Leave a reply