মাশরুম প্রেমীদের জন্য সুখবর, রক্তে শর্করার নিয়ন্ত্রণে সহায়ক জেনে রাখুন

|

ডায়াবেটিস দ্রুত বর্ধমান একটি রোগ। বিশেষত তরুণরা এই রোগের দিকে দ্রুত বিকাশ করছে। এর প্রধান কারণ হল লাইফস্টাইল, ফাস্ট ফুড এবং ক্রমবর্ধমান দূষণ। ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ যা একবার ধরা পড়লে আপনাকে আজীবন বিশ্রাম দেবে না। আপনি যদি এই বিপর্যয় এড়াতে চান তবে মাশরুমগুলি আপনার পক্ষে সহায়ক হতে পারে।

মাশরুমে ক্যালোরির বৈশিষ্ট্যগুলি খুব ছোট। ফ্যাট না এবং কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণও খুব কম। মাশরুম আমাদের দেহে সীমিত পরিমাণে ফাইবার সরবরাহ করে। এ ছাড়া তাজা মাশরুমও খেতে বেশ সুস্বাদু। তাহলে পরীক্ষা প্রেমীদের আর কী দরকার। কারণ টেস্টপ্রেমীদের জন্য মাশরুমও সেরা খাবার এবং ডায়েটযুক্ত মানুষের জন্য নিখুঁত খাবার।

ডায়েট বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন যে তাজা মাশরুম ওজন পরিচালনায় খুব সহায়ক। কারণ এতে রয়েছে অনেকগুলি বৈশিষ্ট্যের পাশাপাশি প্রচুর জলের সামগ্রী। শরীরের ওজন রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আপনার খাবারে জলের পরিমাণ কম ফ্যাট কম ও ফাইবার কম এই তিনটি বৈশিষ্ট্য আপনার থাকা উচিত।

ডায়েট বিশেষজ্ঞদের মতে, একজন সুস্থ ব্যক্তির প্রতিদিন ২৫ থেকে ৩৫ গ্রাম ফাইবার গ্রহণ করা উচিত। মাশরুমগুলিতে দ্রবণীয় এবং অদ্রবণীয় উভয় ফাইবার থাকে। দ্রবণীয় ফাইবার রক্তে শর্করার মাত্রা সঠিকভাবে বজায় রাখতে সহায়তা করে। এইভাবে, শুধুমাত্র মাশরুম নয়, তাজা মাশরুমগুলি ডায়াবেটিসের রোগীদের সুস্থ রাখতে কাজ করে।








Leave a reply