বগলে হওয়া দাগ ও দুর্গন্ধের থেকে বাঁচার ১০ টি উপায়

|

আমাদের শরীরের দুর্গন্ধ আমাদের জন্য একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে পারে। অত্যাধিক বগলের গন্ধ অন্যদের জন্যও অসুবিধা সৃষ্টি করে। বেশির ভাগ সময় আমরা নিজেরাই লজ্জা পাই দুর্গন্ধের জন্য এবং লোকজনদের সামনে থেকে দূরে সরে যাই। আমাদের রোজকার জীবনেও খুব প্রভাব ফেলে এই সমস্যা। তাই আজ আমরা জেনে নি কিছু পদ্ধতি যার ফলে আমরা সহজেই বগলে হওয়া দাগ এবং দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পেতে পারি।বগলে হওয়া দাগ থেকে বাঁচার উপায়-

লেবু: আমাদের বগলে হওয়া দাগকে লেবু খুব সহজেই দূর করতে পারে। বলা হয় যে বগলের গন্ধ দূর করার জন্য লেবু সব চেয়ে বেশি কার্যকরী। লেবুর একটা টুকরো কেটে আমাদের বগলে লেবুটা ঘষতে হবে। এই পদ্ধতিটি নিয়ম করে বেশ কিছুদিন মেনে চললেই আমরা আমাদের বগলে হওয়া দাগ থেকে মুক্তি পেতে পারি।

আলুর রস: আমরা সবাই জানি যে আলু একটি প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্ট। আলুকে ঘষে তারপর চিপে তার রস বের করতে হবে। এই রসটা যদি বগলের তলায় লাগানো যায় তাহলে আমাদের বগলের ত্বক আবার তার নিজের রঙ পেতে পারে।

আয়ুর্বেদিক পদ্ধতিঃ আয়ুর্বেদে একটি খুব সহজ পদ্ধতি উল্লেখ করা আছে যার দ্বারা আমরা বগলের দাগ দূর করতে পারি।শশার রস এবং লেবুর রসের মিশ্রনের মধ্যে এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে সেইটা যদি বগলে লাগানো যায় তাহলে আমরা খুব তাড়াতাড়ি এই সমস্যার সমাধান পেতে পারি।

বেকিং সোডাঃ আরেকটি খুবই কার্যকরী পদ্ধতি হল বেকিং সোডা। বেকিং সোডার সাথে একটু জল মিশিয়ে তার একটি পেস্ট বানাতে হবে। সেই পেস্টটা আমাদের বগলে লাগালে আমরা খুব তাড়াতাড়ি আর সহজেই আমাদের বগলের দাগকে দূর করতে পারি।

চন্দনের গুঁড়ো সাথে গোলাপজলের মিশ্রণঃ চন্দনের গুঁড়োর সাথে গোলাপজল মিশিয়ে সেটা যদি রোজ আমাদের বগলে লাগানো যায় তাহলে বগলের দাগতো দূর হওয়ার সাথে সাথে আমাদের বগলের দুর্গন্ধও দূর হয়।

বগলে হওয়া দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার উপায়ঃ-

ভিনেগারঃ আমাদের বগলের দুর্গন্ধ দূর করার এক মহৌশোধ হল ভিনেগার। ভিনেগার ডিওড্রেন্টের মতনও কাজ করে। স্নান করার পর কিছুটা তুলো ভিনেগারে ভিজিয়ে তা আমাদের বগলের তলায় রাখতে হবে। কিছু মিনিট রাখার পর পরই এইভাবে আমরা বগলের গন্ধ দূর করতে পারি।

আয়োডিনঃ কিছুটা আয়োডিন নিয়ে সেইটা কোনো নরম দাঁতের ব্রাশ দিয়ে আমাদের বগলে ঘষতে হবে। ৫-৬ মিনিট আয়োডিনটি আমাদের বগলে রেখে দিতে হবে। এইভাবে কয়েক সপ্তাহ পদ্ধতিটি পালন করলেই আমরা বগলের দুর্গন্ধ থেকে রেহাই পেতে পারি।

হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডঃ আমাদের বগলের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডও খুবই উপকারী।এক কাপ জলে এক চামচ হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড মেশাতে হবে।তারপর একটি তুলো সেই মিশ্রনে ভিজিয়ে আমাদের বগলে কিছুক্ষন রাখলেই আমাদের বগলের দুর্গন্ধ দূর হবে।

অ্যালকোহলঃ অ্যালকোহলও আমাদের বগলের দুর্গন্ধ দূর করে। অ্যালকোহল আমাদের বগলের ত্বকের পোর্সদের বন্ধ করে। এক কাপ জলে কিছুটা অ্যালকোহল মিশিয়ে সেইটা যদি আমাদের বগলে লাগানো যায় তাহলে আমাদের বগলের গন্ধ দূর হয়।

রোজমেরিঃ রোজমেরিতে মিথানল আর ক্লোরোফিল আছে যার মধ্যে প্রাকৃতিক ডিওড্রেন্টের গুন আছে। রোজমেরিতে জিঙ্কও আছে। জিঙ্কের অভাবে আমাদের শরীরে দুর্গন্ধ হয়। রোজিমেরিতে এইসব গুন থাকার ফলে রোজমেরি আমাদের বগলের দুর্গন্ধ দূর করতে সফল হয়।

আজ আমরা কয়েকটি সহজ পদ্ধতি জেনে নিলাম বগলের দাগ এবং দুর্গন্ধ দূর করার জন্য। আশাকরি এই সহজ পদ্ধতিগুলি আপনাদের রোজকারের জীবনাযাপনকে আরো সহজ করে তুলতে সাহায্য করবে। পার্লারে না গিয়ে এই পদ্ধতিগুলি কিন্তু খুব সহজেই আমরা বাড়িতেই প্রচেষ্টা করতে পারি। আর আরেকটা কথা অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে খুব বেশি ঘাম আর তার ফলে বগলে দুর্গন্ধ হলে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি।








Leave a reply