পান খেয়ে দাঁতে দাগ পড়েছে? তিন মিনিটেই হবে ঝকঝকে সাদা

|

ঝগড়া নয়, মিষ্টি হাসিতেই কারো মন জয় করা সম্ভব। তবে সেই হাসিতে যদি দাগ থাকে তবে তো মুশকিল। কারণ হলদেটে দাঁতের হাসি মন জয় করার বদলে আপনাকে লজ্জায় ফেলে দেবে। এছাড়া হলদেটে দাঁত সহজেই সবার চোখে লাগে, ফলে এক ধরনের অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।
মূলত নানা রকমের খাবার খেতে খেতে সাদা দাঁত একসময় হলদেটে হয়ে যায়। চা-কফি পান বা ধূমপান করাতে দাঁত কালোও হয়ে যায়। অনেকের দাঁতের ফাঁকে ফাঁকে বিশ্রী দেখতে আস্তরণ, দাঁতের ওপর ছোপ, সুন্দর হাসিকেই নষ্ট করে দেয়। যার ভয়ে খোলা মনের হাসি প্রাণ থেকে আসে বটে; কিন্তু ঠোঁটের ব্যারিকেড থেকে আর বেরোতে পারে না।

তবে এসব কিছুর সমাধান মিলবে ঘরে বসেই মাত্র ৩ মিনিটে। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই জাদুকরী উপায়টি-

এক চামচ বেকিং সোডা আর তাতে লেবু ও পানি নিয়ে ঝটপট তৈরি করে নিন একটা মিশ্রণ। ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো করে মেশান, যতক্ষণ না তা পেস্টের মত হচ্ছে। এরপর ব্রাশে সেই বেকিং সোডা ও লেমনের পেস্ট লাগিয়ে দাঁত মাজুন অন্তত পক্ষে এক মিনিট। তারপর কুলকুচি করে নিন। এতে দাঁতে কোনো রকম খারাপ প্রভাব পড়বে না, উল্টো দাঁত হবে ঝকঝকে সাদা ও সুন্দর।

পান Piperaceae পরিবারের গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলের একপ্রকার লতাজাতীয় গাছের পাতা। আর্য এবং আরবগণ পানকে তাম্বুল নামে অভিহিত করত। নিশ্বাসকে সুরভিত করা এবং ঠোঁট ও জিহবাকে লাল করার জন্য মানুষ পান খায়।

ব্যবহার
কেবল স্বভাব হিসেবেই নয়, বাংলাদেশে ঐতিহ্যগতভাবে সামাজিক রীতি, ভদ্রতা এবং আচার-আচরণের অংশ হিসেবেই পানের ব্যবহার চলে আসছে। অনুষ্ঠানাদিতে পান পরিবেশন দ্বারা প্রস্থানের সময় ইঙ্গিত করা হয়। এক সময় উৎসব, পূজা ও পুণ্যাহে পান ছিল অবিচ্ছেদ্য অংশ। প্রাচীন অভিজাত জনগোষ্ঠীর মাঝে পান তৈরি এবং তা সুন্দরভাবে পানদানিতে সাজানো লোকজ শিল্প হিসেবে স্বীকৃতি পেত।

পানের সাথে সবসময়ই সুপারি দেয়া হয়, তবে অনেকেই সুপারি ছাড়া পান খেতে পছন্দ করেন।অনেকে জর্দা দিয়েও পান খান।পান সাধারণত: কোনকিছু খাওয়ার পর মুখে নিয়ে চিবুনো হয়৷








Leave a reply