নিরামিষ খাওয়ার উপকারিতা জেনে নিন, সুস্থ্য থাকুন

|

ভালো স্বাস্থ্যের জন্য নিরামিষ খাবার অত্যন্ত জরুরি। আমাদের দেশের প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ নিরামিষ খাবার খেতে পছন্দ করেন। নিরামিষ খাবারে প্রচুর পরিমানে ফাইবার, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, এছাড়া প্রোটিন ও জরুরি নিউট্রিশনস বর্তমান। নিরামিষ খাবারে স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকেনা। ফলত এই ধরণের খাবার আমাদের শরীরে বাড়তি মেদ জমতে দেয় না এবং অনেক রকম রোগের আক্রমণ থেকে রক্ষা করে। আসুন দেখে নেওয়া যাক নিরামিষ খাবার আমার আমাদের শরীরের জন্য কেন প্রয়োজনীয়।

শরীরের জরুরি চাহিদা পূরণ করেঃ নিরামিষ মানে শাক সবজি, ফলমূল, সয়াবিন, মাশরুম, ডাল ইত্যাদি। এই সমস্ত খাবারে আমাদের শরীরের জন্য জরুরি ভিটামিন ই, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি ১২ এছাড়া আইরন, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, জিঙ্ক ক্যালসিয়াম, আয়োডিন, আয়রন থাকে। এছাড়া প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। ফলত এগুলি আমাদের শরীরের জরুরি চাহিদা পূরণ করে আমাদেরকে সুস্থ্য রাখে।

অতিরিক্ত মাত্রায় আমিষ প্রোটিন আমাদের শরীরে নানা রকম শারীরিক অসুবিধার সৃষ্টি করে। যেমন কিডনিতে পাথর, এছাড়া উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি। কিন্তু শাক সবজি বা অন্যান্য নিরামিষ জাতীয় খাবার আমাদের শরীরে এই ধরণের সমস্যা গুলি হতে দেয়না বা এই ধরণের রোগ গুলির সম্ভাবনাকে কম করে।

ভিটামিনঃ সবুজ শাক সবজিতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি থাকে যা আমাদের চোখ ভালো রাখে। ম্যাকুলার ডিজেনারেশন এর স্বভাবনাকে কম করে। এছাড়া এই ভিটামিন সি আমাদের শরীরে কোলাজেন তৈরী করতে সাহায্য করে যা আমাদের আর্থারাইটিস হওয়ার সম্ভাবনাকে কম করে।

মস্তিষ্কের পুষ্টিঃ সবুজ শাক সবজিতে প্রচুর পরিমানে এন্টিঅক্সিডেন্ট ও ক্যারোটিনোইডস থাকে যা ফ্রি রাডিক্যালস গুলিকে নষ্ট করে এবং আমাদের মস্তিষ্কের পুষ্টি সাধন করে। এছাড়া প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি থাকে যা আমাদের মস্তিষ্কের কোষ গুলিকে সতেজ ও কার্যকরী করে তোলে।

মেটাবলিসমলঃ নিরামিষ শাক সবজিতে বর্তমান ফাইবার, আয়রন, আমাদের শরীরের রক্তের লাল রক্তকণিকাগুলিকে শরীরের সব প্রান্তে পৌঁছে দেয় ফলত আমাদের মেটাবলিসমকে বাড়িয়ে তোলে। এছাড়া নিরামিষ খাবার এ ক্যালোরি কম থাকে। ফলত আমাদের ওজন কম করতে সাহায্য করে।

ক্যান্সারঃ সবুজ শাকসবজি আমাদের শরীরে কোলন ক্যান্সার, স্টমাক ক্যান্সার, স্কিন ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। এগুলিতে বর্তমান এন্টিঅক্সিডেন্ট, ফ্লাভোনোয়েডস, বর্তমান। এগুলি ক্যান্সারের জীবাণুদের নষ্ট করে। এছাড়া ব্রকোলি, বাঁধাকপিতে বর্তমান সালফোরাফান, এবং ইসথিওক্যান্টে আমাদের শরীরে ক্যান্সারের জীবাণুগুলির সাথে লড়তে সাহায্য করে।

নিরামিষ খাবার যেমন সয়াবিন আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এতে বর্তমান ভিটামিন কে, ভিটামিন বি ৬, ভিটামিন সি, এছাড়া প্রয়োজনীয় নিউট্রিশনস যেমন ক্যালসিয়াম, আয়রন,পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক, ইত্যাদি বর্তমান। এটি মাছ, মাংস ও ডিমের থেকে বেশি পুষ্টিদায়ক।

স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে নাঃ এতে কোনোরকম স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকেনা। ফলত এটি কোলেস্টেরলের পরিমানকে স্বাভাবিক রাখে। এটি আমাদের শরীরে আর্থেরোস্ক্লেরোসিস হওয়ার সম্ভাবনা কম করে ফলত হার্ট এট্যাক বা স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনাকে কম করে। এছাড়া এতে বর্তমান ফাইবার আমাদের হজম ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করে। এছাড়া এতে বর্তমান এন্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের শরীরে ফ্রি রাডিক্যালস গুলিকে নষ্ট করে ফলত ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। এছাড়া এটি রক্ত চাপকে স্বাভাবিক রাখে এবং টাইপ ১ এবং টাইপ ২ ডায়বেটিস এর সম্ভাবনাকে কম রাখে।

এছাড়া অন্যান্য গুনাগুণঃ নিরামিষ খাবার যেমন পনির আমাদের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এতে প্রোটিন, ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদি বর্তমান। এটি আমাদের শরীরে গুড কোলেস্টেরলের মাত্রাকে বাড়িয়ে তোলে। আমাদের হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখে। এছাড়া চুল, ত্বক, দাঁত ও হাড়কে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

নিরামিষ খাবার যেমন মাশরুম আমাদের শরীরে ভিটামিন ডি সরবরাহ করে। এতে বর্তমান প্রোটিন এবং নিউট্রিশনস আমাদের শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। এতে বর্তমান এন্টিঅক্সিডেন্ট আমাদে শরীরে ফ্রি রাডিক্যালস গুলিকে নষ্ট করে এছাড়া এতে বর্তমান ভিটামিন আমাদের মস্তিষ্কের কোষগুলিকে সক্রিয় করে।

নিরামিষ খাবারের উপকারিতা বলে শেষ করার মতো নয়। প্রতিদিন সঠিক পরিমান নিরামিষ খাবার আমাদের শরীরকে অনেক বেশি পরিমানে কর্মক্ষম রাখতে সাহায্য করে।








Leave a reply