নিজেকে সর্বদা ফিট রাখতে যেভাবে হজম ক্রিয়া উন্নত করবেন

|

নতুন বছর উপলক্ষে অনেকে ফিট থাকতে এবং নিজেকে সুস্থ রাখার কথা ভেবে থাকেন। নিজেকে সুস্থ রাখা আজ খুব কঠিন। প্রায়ই লোকেরা হারিয়ে যাওয়া জীবনের মাঝে তাদের খাবারের প্রতি খুব বেশি মনোযোগ দিতে অক্ষম হয়, যার কারণে তাদের স্বাস্থ্যও ভাল নয়।প্রকাশিত একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে যে শরীরে বিপাকীয় পরিবর্তনগুলি পরিবর্তন করতে পারে যা আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী হতে পারে। এর সাথে আপনার ওজনও এর মাধ্যমে হ্রাস করা যায়।

বিপাকের পরিবর্তন কী?

বিপাকের বৃদ্ধি এবং হ্রাসের সাথে আমাদের ওজনও হ্রাস পায়। ধীরে ধীরে বিপাক অতিরিক্ত ওজনকে দায়ী করা হয়। এটিও বিশ্বাস করা হয় যে খাওয়া এবং অনুশীলন বিপাক নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে খাওয়া বা পানি পান করার সময় বিপাকের পরিবর্তনও ঘটে। শরীরে প্রচুর পরিমাণে চিনি বা ফ্যাট থাকলে এটি আমাদের দেহের কোষগুলিকে নষ্ট করার কাজ করে। যদি অনুশীলন এবং শারীরিক ক্রিয়াকলাপের সাথে পর্যবেক্ষণ করা হয় তবে বিপাকের পরিবর্তনের অর্থ লিভারের গ্লাইকোজেন স্টোর এবং অ্যাডিপোজ সেলগুলি থেকে ফ্যাটি অ্যাসিডগুলি সরিয়ে দেওয়া।

বিপাক পরিবর্তনের সুবিধা?

বিপাক খুব সহজেই পরিবর্তিতকরা যাই, তবে আপনি যদি আপনার ডায়েট এবং আপনার জীবনযাত্রাকে সঠিক উপায়ে রাখেন তবে এটি আপনার দেহের কোনও উল্লেখযোগ্য ক্ষতির কারণ হবে না। যদি আপনি একটি সময় এবং ব্যায়াম এবং শারীরিক ক্রিয়াকলাপের জন্য জীবনযাপন করেন তবে বিপাকের পরিবর্তন হয় এবং এটি কোষ থেকে চর্বিগুলি সরিয়ে দেয়। এগুলি ছাড়াও যদি আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা, কোলেস্টেরল স্তর এবং রক্তচাপ সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করে তবে এটি আপনার শরীরে প্রদাহজনিত দমন করতেও কাজ করে। এছাড়াও এটি আপনার স্মৃতি শক্তিও শক্তিশালী করে।

বিপাক ক্রমবর্ধমান পদ্ধতির সাহায্যে আপনি আপনার স্বাস্থ্যকে ঠিক রাখতে পারেন। বিপাক আপনার দেহের সমস্ত রাসায়নিক বিক্রিয়ার মূল ভিত্তি। এই রাসায়নিক বিক্রিয়াগুলি আপনার শরীরকে সুস্থ এবং সক্রিয় রাখতে সহায়তা করতে পারে। তবে বিপজ্জনকভাবে আপনার ব্যবহৃত ক্যালোরির সংখ্যার সাথে আদান-প্রদানের ব্যবস্থা ব্যবহৃত হয়। আপনার বিপাকীয় সিস্টেম যত শক্তিশালী হবে তত বেশি আপনার শরীর ক্যালোরি গ্রহণ করবে এবং আপনাকে ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করবে। এর সাথে সাথে আপনি উচ্চ বিপাকের দ্বারা শক্তিও অর্জন করেন যা আপনার শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং উপকারী।

বেশি জল পান করুন

জল শরীরের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জিনিস এবং আমাদের দেহের অধিকাংশই পানি দিয়ে তৈরি। পানির অভাবে ডিহাইড্রেশন হতে পারে। আপনি যদি কম জল পান করেন তবে আপনার হজমও ঠিক রাখে না এবং বিপাকটি ধীর হয়। অতএব, আপনার প্রতিদিন প্রচুর জল পান করা উচিত। বেশি জৈব খাবার খান বাজারে উপস্থিত খাবার এবং খোলা জায়গায় পাওয়া অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে আপনার স্থূলত্ব এবং স্বাস্থ্য কখনই ভাল হতে পারে না। আপনি যদি স্বাস্থ্যকর এবং ফিট রাখতে চান তবে আপনার আরও বেশি জৈব খাবার গ্রহণ করা উচিত। যেমন সবুজ শাকসবজি, ডাল, ফলমূল, শুকনো খাবার, ডিম, লাল মাংস ইত্যাদিতে প্রোটিন এবং খনিজ থাকে যা আপনাকে স্বাস্থ্যকর রাখতে সহায়তা করে।

সঠিক ডায়েট নিন অনেক লোক প্রায়শই ভাবেন যে তারা যদি কিছু দিনের জন্য খাদ্য গ্রহণ কমিয়ে দেয় তবে তারা তাদের স্থূলত্ব হ্রাস করতে সক্ষম হবে। তবে এটি এমন নয় যে আপনার শরীর দুর্বল হয়ে যায়। আপনার সঠিক পরিমাণে ডায়েট পাওয়ার চেষ্টা করা উচিত।








Leave a reply