তৎক্ষণাৎ হেঁচকি থামানোর পাঁচ উপায়

|

দৈনন্দিন নানা ছোট-বড় সমস্যা মধ্যে একটি হচ্ছে হেঁচকি। যা খুবই বিরক্তিকর। হেঁচকি অনেক সময় আপনাকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতেও ফেলে দেয়। দেক্ষা যায় হঠাৎ করে খাওয়ার সময়, ঘুমের মধ্যে এবং যে কোনো পরিস্থিতিতেই হেঁচকির সমস্যা দেখা দেয়। যা কিছুতেই থামতে চায় না।
এ বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মাদ যায়েদ হোসেন বলেন, হেঁচকি কোনো রোগ নয়, সাধারণত গলায় খাবার আটকে গেলে এ সমস্যা হতে পারে। এছাড়া অত্যধিক স্ট্রেস, উদ্বিগ্নতার কারণে এ সমস্যা হতে পারে।

তিনি বলেন, হঠাৎ হেঁচকির সমস্যা হলে অবশ্যই পানি খেতে হবে। আর এক টুকরো আদা মুখে দিয়ে চিবালে এ থেকে মুক্তি মেলে।

হেঁচকি কেন হয়?

দ্রুত খাবার খাওয়া, অত্যধিক স্ট্রেস, উদ্বিগ্নতা, মাত্রাতিরিক্ত আনন্দ, অ্যালকোহল এবং স্মোকিংয়ের মতো খারাপ অভ্যাস থাকলে হেঁচকি হতে পারে।

এছাড়া খুব গরম বা ঠাণ্ডা খাবার খেলে শরীরের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা হঠাৎ ওঠানামা করে, যার কারণে হেঁচকি হয়। আর অতিরিক্ত ঝাল ও স্পাইসি খাবার খেলেও হতে পারে।

হেঁচকি বন্ধ করতে করণীয়

হেঁচকি বন্ধ করতে আদার রস খেতে পারেন। এক্ষেত্রে এক টুকরো আদা মুখের ভেতরে দিয়ে চুষতে থাকুন। হেঁচকি থেমে যাবে।

হেঁচকি উঠলে এক চামচ চিনি বা মিছরি খেয়ে নিন। দ্রুত হেঁচকি বন্ধ হবে।

হেঁচকি হলে দুটো এলাচ চিবিয়ে খান কিংবা এলাচের গুঁড়ার সঙ্গে একটু পানি মিশিয়ে খেতে পারেন।

পাতিলেবুও হেঁচকি দূর করে। হেঁচকি উঠলে এক টুকরো পাতিলেবু জিভের ডগায় রেখে চুষতে থাকুন। হেঁচকি কমে যাবে।

এক চা চামচ মধু এবং এক চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে খেতে পারেন।








Leave a reply