ডাস্ট অ্যালার্জিতে কাজে লাগাতে পারেন এই ৪ ঘরোয়া টোটকা

|

হাঁচি, কাশি ছাড়াও শ্বাসকষ্ট, চোখ-নাক থেকে অনবরত জল পড়ার সমস্যা বা ত্বকে চুলকানির মতো একাধিক সমস্যা দেখা দিতে পারে ডাস্ট অ্যালার্জির কারণে। এই অবস্থায় চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া বার বার অ্যান্টি অ্যালার্জি ওষুধ খাওয়া বিপজ্জনক হতে পারে! তাই ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে মুঠো মুঠো অ্যান্টি অ্যালার্জি ওষুধের বদলে কয়েকটি ঘরোয়া টোটকা কাজে লাগিয়ে দেখতে পারেন।

ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যা থেকে রেহাই পেতে গ্রিন-টি খেয়ে দেখতে পারেন। গ্রিন-টি-এর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট উপাদান অ্যালার্জির সমস্যার উপশমে সাহায্য করে। ত্বকের চুলকানি, চোখে লাল ভাব ইত্যাদি সমস্যা রুখতে এটি খুবই কার্যকর। সারা বছর বেশি করে সবুজ শাক-সবজি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। সবুজ শাক-সবজি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি অ্যালার্জির সমস্যাও কমাতেও সাহায্য করে। সবুজ শাক-সবজি শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন, মিনারেলের যোগান দেয়।

বন্ধ নাক, মাথা যন্ত্রণা, চোখ-নাক দিয়ে অনবরত জল পড়া ইত্যাদির সমস্যায় গরম জলের ভাপ অত্যন্ত কার্যকর! একটি পাত্রে গরম জল নিয়ে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা ইউক্যালিপটাস তেল ফেলে তার ভাপ (ভেপার) নিয়ে দেখুন। ভেপার নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বন্ধ নাক খুলে যাবে। অ্যালার্জির কারণে নাকের ভিতরে হওয়া অস্বস্তিও কমে যাবে।

ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যায় ঘি অত্যন্ত কার্যকর পথ্য! এই সময় ঘি খেয়ে দেখতে পারেন, ফল পাবেন ম্যাজিকের মতো। যে কোনও ধরনের অ্যালার্জির সমস্যার সঙ্গেই ঘি প্রাকৃতিক ভাবে লড়াই করতে সক্ষম। এক চামচ ঘি তুলোয় লাগিয়ে সরাসরি ত্বকের চুলকানির জায়গায় লাগান। দেখবেন ত্বকের অস্বস্তি, জ্বালা ভাব অনেকটাই কমে যাবে। প্রতিদিন এক চামচ করে ঘি খেতে পারলে ঠাণ্ডা লাগা বা অ্যালার্জির সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমবে অনেকটাই।








Leave a reply