ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি দেয় করল্লা, জেনে নিন

|

তিতা করলা খেতে খুব তেতো স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। তিতা ডায়াবেটিসের জন্য অমৃত হিসাবে বিবেচিত। করলার নিয়মিত সেবন করলে শরীরের ইনসুলিন স্বাভাবিক থাকে। যা ডায়াবেটিসের মত অন্যান্য রোগের ঝুঁকি হ্রাস করে। এ ছাড়া করলা খাওয়া আমাদের পেটের রোগ, যকৃত, হাঁপানি ইত্যাদির মতো অনেক মারাত্মক ও নিরাময়ের রোগের ত্রাণ দিতে সহায়তা করে। করলার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিই।


করলার পুষ্টির উপাদান:
তেতো করলা একটি উদ্ভিজ্জ জাতীয় ফল। করলার অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিনগুলো ডায়াবেটিসের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া এতে প্রচুর পরিমাণে ক্যারোটিন, বিটা ক্যারোটিন, ফসফরাস, আয়রন, জিঙ্ক, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ পাওয়া যায়।


করলার উপকারিতা:
১. তেতো ডায়াবেটিস এবং পেটের কৃমি দূর করতে সহায়তা করে। এ জন্য প্রতিদিন এক গ্লাস পানিতে এক চা চামচ করলার রস নিয়মিত করলে পেটের কৃমি দূর হয় এবং লিভারকে শক্তিশালী করে।


২. যদি আপনি বদহজম বা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন তবে নিয়মিত করলার রস খাবেন। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য, অম্বল এবং টক বেল্টগুলির সাথে অম্লতা থেকে মুক্তি দেয়। খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে।


৩. তিতা করলা জন্ডিস এবং যকৃতের রোগ নিরাময় করতে পারে। প্রতিদিন করলার রস পান করলে কিছু দিনের মধ্যে জন্ডিস থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।


৪. তিতা খাওয়া শ্বাসকষ্টজনিত রোগের ক্ষেত্রেও খুব উপকারী। ধুলা-ধোঁয়া এবং হাঁপানির আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে মধুর সাথে করলার রস মিশিয়ে রাতে গ্রহণ করতে পারেন।


৫. করলা হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করতে সাহায্য করে। করলার রস খাওয়া বা করলা শাক খাওয়া শরীরে কোলেস্টেরল ও রক্তে শর্করার মাত্রা কমায়।








Leave a reply