টুথপেস্ট ত্বকের দাগ দূর করবে , কিভাবে জেনেনিন

|

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় জিনিস হল টুথপেস্ট। প্রতিদিন সকাল ও রাতে অবশ্যই অপরিহার্য বিষয় হল টুথপেস্ট। আমাদের দাঁত পরিষ্কার রাখার জন্য টুথপেস্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। কিন্তু, এই টুথপেস্টের বিভিন্ন চমকপ্রদ ব্যবহার রয়েছে। নিচে তা আলোচনা করা হল-

১. ত্বকের দাগ কমাতে সাহায্য করে:
ত্বকে কোন দাগ দেখা দিলে সেখানে কিছুক্ষণ পেস্ট লাগিয়ে রাখুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এতে আস্তে আস্তে আপনার ত্বকের দাগ দূর হয়ে যাবে। আপনার ত্বকের চামড়া যদি সংবেদনশীল হয়, তাহলে কোন সাধারণ সাদা রঙের পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। অতি উচ্চমাত্রায় মেন্থল বিশিষ্ট টুথপেস্ট কখনোই ত্বকে লাগাবেন না।

২. রূপা পোলিশ করা:
রুপার জিনিস ঘরে পড়ে থাকার কারনে এর উজ্জ্বলতা হারায়। অনেক সময় হলদে ও কালশিটে ভাব চলে আসে। এসব জিনিস পরিষ্কার করার জন্য আবার স্বর্ণকারের দোকানে যেতে হয়। এর চেয়ে ঘরে বসে বসেই আপনি টুথপেস্টের সাহায্যে রুপার জিনিসের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে নিতে পারেন। কাপড়ের মধ্যে টুথপেস্ট নিয়ে রূপার জিনিসে ঘষা দিন। দেখবেন কিছুক্ষণের মধ্যে জিনিসগুলো চকচক করছে।

৩. সিডির স্ক্র্যাচ এর দাগ দূর করে:
পছন্দের গান শুনবেন? কিন্তু, প্রিয় সেই গানের সিডিতে স্ক্র্যাচ এর দাগ থাকার কারণে শুনতে পাড়ছেন না। তাহলে এখনি তাতে কিছু টুথপেস্ট লাগিয়ে দিন। কিছুক্ষণ পর সিডি চালিয়ে দেখুন, একদম ঠিক হয়ে গেছে।

৪. জুতা পরিষ্কার করতে:
ব্র্যান্ড এর নতুন জুতা কিছুদিন পর ময়লা হয়ে যায়। এর সৌন্দর্য কিছুদিন পর হ্রাস পেতে থাকে। পুরাতন একটি ব্রাশ নিয়ে তাতে টুথপেস্ট লাগিয়ে জুতার চারপাশে লাগিয়ে রাখুন। আপনি জুতার সৌন্দর্য দেখে বিস্মিত হয়ে যাবেন।

৫. চা ও কফির দাগ দূর করতে:
চা ও কফির মগ কিছুদিন ব্যবহার করার পরে তাতে বিভিন্ন দাগের সৃষ্টি হয়। বারবার ধৌত করার পরও সহজে এ দাগ যেতে চায় না। মগের ভিতরে যে ব্রাউন রিং এর সৃষ্টি হয়, তা যেতে চায় না। তাই, তরল ওয়াশিং ব্যবহার করার চাইতে টুথপেস্ট ব্যবহার করে দেখতে পারেন। দাগের স্থানগুলোতে ভাল করে কিছুক্ষণ টুথপেস্ট লাগিয়ে রাখুন। তারপর জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। জাদুকরীভাবে সকল দাগ দূর হয়ে যাবে।








Leave a reply