জিহ্বার কালো দাগ দূর করার উপায়

|

জিহ্বার রঙ কালো এটি আপনার শারীরিক ক্ষতি করে না তবে এটি আপনার মুখের সৌন্দর্যকে অকেজো করে তুলতে পারে। মুখ থেকে গন্ধ আসার কারণে আপনি মন খারাপ করতে পারেন। তাই আপনার মুখের স্বাস্থ্যের প্রতি বিশেষ যত্ন নিন।

আপনার শরীরের প্রতিটি অঙ্গ সুস্থ রাখা আপনার পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ। তবে অনেক সময় শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় আমরা আমাদের স্বাস্থ্যের দিকে তেমন মনোযোগ দিই না।তবে আপনি যদি জিহ্বা পরিষ্কার না করেন তবে আপনার অনেক সমস্যা হতে পারে। নোংরা জিহ্বার কারণে জিহ্বা আঠালো হয়ে উঠতে পারে, এটি দুর্গন্ধযুক্ত হতে পারে, জিহ্বা রঙ কালো বা হলুদ হতে পারে।

খারাপ জীবনধারা আপনার জিহ্বার রঙকে কালো করে তুলতে পারে। সাধারণত জিরাটের পৃষ্ঠে কেরাটিন নামক একটি প্রোটিন তৈরি হতে শুরু করে, জিহ্বা কালো হয়ে যায়। যদিও এটি খুব বিরল। তবে অনেক নোংরা অভ্যাসের কারণে আপনার জিহ্বা কালো হতে পারে। আপনি যদি নিজের মুখটি সঠিকভাবে পরিষ্কার না করেন, রুটিনে দাঁতের চেকআপ করেন, স্বাস্থ্যকর জিনিস খাবেন এবং ধূমপান করবেন না তবে আপনার জিহ্বার রঙ পরিবর্তন হতে পারে।আসুন জেনে নিই জিভ কালো হওয়ার কারণ এবং প্রতিকার কী।

 জিহ্বা  কালো বলতে কী বোঝায়?

জিহ্বার রঙ কালো যার অর্থ এটি গলাতে ব্যাকটিরিয়া বা ছত্রাকের কারণেও হতে পারে। জিহ্বার রঙ কালো হয়ে গেলেও কোনও সমস্যা নেই, আপনি নিজেই এটি সংশোধন করতে পারেন। কালো জিহ্বার আর একটি কারণ কেরাটিন নামক একটি প্রোটিনযুক্ত জিহ্বার ত্বকের আচ্ছাদন। কখনও কখনও জিহ্বা তে কেরাটিন জমে থাকে। যার কারণে আপনার জিহ্বা কালো হতে পারে। ডাক্তাররা এটিকে অন্ধকার কেশিক জিহ্বা বলে।

জিহ্বাকে কালো হওয়ার কারণ

জিহ্বার রঙ কালো হওয়ার অনেকগুলি কারণ রয়েছে। যার কারণে এর বিভিন্ন লক্ষণ হতে পারে। কালো জিহ্বার রঙ সর্বদা কালো হওয়া প্রয়োজন নয়। যাইহোক, জিহ্বাকে কালো করার প্রাথমিক লক্ষণগুলি হ’ল আপনার জিহ্বায় দীর্ঘ, থ্রেড তৈরি হয়। যার কারণে জিহ্বায় চুল দেখতে পাওয়া যায়। কালো জিহ্বা থাকলে লোকেরা এই লক্ষণগুলি অনুভব করে।

১- জিহ্বার রঙ পরিবর্তন হতে শুরু করে যার কারণে জিহ্বা কালো, সাদা বা হলুদ হয়ে যায়।

২- কখনও কখনও জিহ্বা স্টিক করা শুরু করে তবে জিহ্বার রঙ পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয় না।

৩- কখনও কখনও মুখ জ্বলতে শুরু করে।

৪- মুখের স্বাদ খারাপ হয়ে যায়।

৫- জিহ্বা কালো হয়ে এলে দুর্গন্ধ আসতে শুরু করে।

এই অভ্যাসের কারণে জিহ্বা কালো হয়ে যায়

আপনি যদি নিয়মিত ব্রাশ করা এবং জিহ্বা পরিষ্কার করার মতো মুখটি ঠিক মতো পরিষ্কার না করেন তবে আপনার জিহ্বা কালো হতে পারে। তামাক এবং সিগারেট ধূমপান জিহ্বা এবং দাঁত রোগের কারণও হয়। ধূমপান আপনার জিহ্বাকে কালো করে দিতে পারে।

 বেশি কফি খাওয়ার পরেও জিহ্বা কালো হয়ে যায়।

একটানা কালো চা পান করার পরেও জিহ্বার রঙ কালো হয়ে যায়।

আপনি যদি আপনার খাবারের যত্ন না নেন। সঠিক ডায়েট গ্রহণ করবেন না, আপনার জিহ্বা কালো হতে পারে।

কালো জিহ্বা সংশোধনের ঘরোয়া প্রতিকার

আপনার জিহ্বা যদি কালচে বর্ণের হয় তবে আপনার মুখের স্বাস্থ্যের বিষয়ে সতর্ক হওয়া উচিৎ। যদিও জিহ্বা কালো হয়ে যাওয়া এত ক্ষতিকারক নয় তবে কথা বলার সময় আপনার মুখ থেকে গন্ধটি আপনাকে বিব্রত করতে পারে।

১. প্রথমে আপনার নিয়মিত ফ্লোরাইডযুক্ত টুথপেস্ট দিয়ে ব্রাশ করা উচিৎ।

২. জিহ্বার উপরের পৃষ্ঠ থেকে ব্যাকটিরিয়া এবং ময়লা অপসারণ করতে নিয়মিত বাঁধাকপি দিয়ে জিহ্বা পরিষ্কার করুন।

৩. মুখ থেকে আগত গন্ধ দূর করতে, গরম জলে নুন দিন এবং এটি ধুয়ে ফেলুন।

৪.প্রতিবার খাওয়ার পরে ব্রাশ করুন এবং জিহ্বাও পরিষ্কার করুন। রাতে এমনকি ব্রাশ করতে ভুলবেন না।

৫. জিহ্বায় বেকিং সোডা বা হাইড্রোজেন পারক্সাইড প্রয়োগ করুন।

৬.প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন এবং পেট পরিষ্কার রাখুন।

৭.কাঁচা ফল এবং শাকসবজি বেশি খাওয়া উচিৎ।








Leave a reply