জাঙ্ক ফুড খাওয়ার ফলে এই রোগগুলির ঝুঁকি বেড়ে যায়

|

জাঙ্ক ফুড খাওয়া অনেক রোগের ঝুঁকি বাড়ায়। জাঙ্ক ফুডে প্রচুর পরিমাণে তেল, নুন এবং চিনি ব্যবহৃত হয়। এটা সরাসরি লিভারের উপর প্রভাব ফেলে। এ কারণে শর্করার মাত্রা, রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা শরীরে বৃদ্ধি পায়। এই সমস্ত কারণে, কেবল ১৫-১৬ বছরের শিশুদের মধ্যে স্থূলত্ব বৃদ্ধি পায় না, তারা অল্প বয়সেও ডায়াবেটিসের শিকার হয়ে যায়। ৩০-৪০ বছর বয়সে তারা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়।

শারীরিক ক্রিয়াকলাপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

অ্যাপোলো স্পেকট্রা হাসপাতালের ওজন হ্রাসকারী সার্জন ডাঃ আশীষ ভানোট বলেছিলেন যে, বাচ্চাদের স্থূলত্ব কমাতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হবে তাদের ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণ করা। তারা জাঙ্ক ফুডের মাধ্যমে সর্বাধিক ক্যালোরি গ্রহণ করে তবে শারীরিক ক্রিয়াকলাপ সঠিকভাবে হয় না। এটি চর্বি আকারে শরীরের অভ্যন্তরে জমা হতে শুরু করে। তাই শিশুদের যতটা সম্ভব জাঙ্ক ফুড এবং মিষ্টি খাওয়া থেকে রক্ষা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

জাঙ্ক ফুডের প্রলোভন ছেড়ে দিতে পারে না

বিজ্ঞানীদের মতে, চর্বি এবং শর্করা সমৃদ্ধ জাঙ্ক ফুড আইটেমগুলি আমাদের মস্তিষ্কে প্রভাব ফেলে। কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাবারগুলি মস্তিষ্কে সংকেত প্রেরণকারী বিভিন্ন পথ সক্রিয় রাখে। খাবারে যখন ফ্যাট এবং শর্করা একসাথে মিশ্রিত হয়, তখন এর প্রভাব আরও বৃদ্ধি পায়।

ফরাসি ফ্রাইতে ৩১২ ক্যালোরি

ট্রান্সফ্যাট এবং রাসায়নিক সমৃদ্ধ ফ্রেঞ্চ ফ্রাই কেবল স্থূলত্ব বাড়িয়ে তোলে না তবে হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগের কারণও হতে পারে। ১০০ গ্রাম ফ্রেঞ্চ ফ্রাইতে ৩১২ ক্যালোরি এবং ১৫ গ্রাম ফ্যাট থাকে।

একটি বার্গারে ৫৪০ ক্যালোরি

উচ্চ স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ডায়েটারি কোলেস্টেরল সমৃদ্ধ বার্গার নিয়মিত সেবন করলে নিয়মিত শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এটা হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়। একটি মাঝারি বার্গারে ৫৪০ ক্যালোরি এবং ৮০ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে।

একটি পিজ্জা স্লাইসে ৩১১ ক্যালোরি

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই এবং বার্গারের মতো নিয়মিত পিজ্জা খাওয়ার ফলে শরীরে ফ্যাটের পরিমাণ বেড়ে যায় যা কেবল স্থূলতা বাড়ায় না, দেহে কোলেস্টেরলের পরিমাণও হ্রাস পায়। যার ফলে রক্তের ধমনীগুলি ব্লক হয়ে যায় এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়েছে। পিজ্জায় একটি বৃহত টুকরোতে ৩১১ ক্যালোরি এবং ১৯ গ্রাম ফ্যাট থাকে।








Leave a reply