কারোনা ভাইরাস থেকে নবজাতকের মৃত্যু

|

বুধবার উহান শহরে ভাইরাস সংক্রমণে এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। চীনা গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, জন্মের মাত্র ৩০ ঘন্টা পরে শিশুটি মারা গেছে। বলা হচ্ছে করোনার ভাইরাসের কারণে এটি সর্বকনিষ্ঠ মৃত্যুর ঘটনা। গত বছর থেকে এই ভাইরাসের কারণে চীনে প্রায় ৫০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৪,৩২৪ জন এই সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকলেও ভাইরাসজনিত মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে।

লক্ষণীয় যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাকে বিশ্ব স্বাস্থ্য জরুরী হিসাবে ঘোষণা করেছে । কারোনার ভাইরাসের উদ্ভব চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে হয়েছিল এবং এর সর্বাধিক বিপর্যয় এখানে রয়েছে।

উজবেকিস্তান এয়ারওয়েজের মতে , ৮৪ জন বেসামরিক মানুষকে উহান থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। চীনে কারোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে সারা বিশ্বের দেশগুলি উহান থেকে তাদের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে।

ফিলিপাইনে করোনার ভাইরাসের তৃতীয় মামলার নিশ্চয়তা । চীন থেকে আসা ৬০ বছর বয়সী এক মহিলাকে করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল।

আমেরিকা
আমেরিকা চীনে উপন্যাস কারোনা ভাইরাসের ধ্বংসের জন্য চিকিৎসা সংস্থার সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করছে। বিভিন্ন ধরণের ওষুধ ব্যবহার করছেন যা রোগীদের বেঁচে থাকার হার বাড়িয়ে তোলে। স্বাস্থ্য ও হিউম্যান সার্ভিসেস বিভাগ (এইচএইচএস) এবং ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা রেজনারনের মধ্যে একটি অংশীদারিত্ব এই সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য একচেটিয়া প্রতিরোধক ড্রাগ তৈরি করবে। এটি অ্যান্টেরেট্রোভাইরালস এবং ফ্লু ওষুধ চিকিৎসার মতো হবে। এইন্টিথ্রোভাইরালগুলি এইচআইভি সংক্রমণের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়।


কারোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার জন্য জাপানের দ্বারা দূরে রাখা এই ক্রুজ যাত্রীদের মধ্যে কমপক্ষে ১০ জন সংক্রামিত হয়েছেন। সরকারী সম্প্রচারক ‘এনএইচকে’ এবং জাপানি গণমাধ্যম তাদের খবরে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বরাত দিয়েছে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন অনুযায়ী মঙ্গলবার উহানে ৫ জন মারা গেছে, মঙ্গলবার উহানে ৫ জন মারা গেছে। এছাড়াও, ৩৮৮৭ টি নতুন মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার ৪৩১ জন রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে ওঠে এবং ২২ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতালে ছেড়ে গেছে।

করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত এক প্রবীণ দম্পতির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এই সংবেদনশীল ভিডিওতে দম্পতিকে হাসপাতালে একে অপরকে বিদায় জানাতে দেখা গেছে।








Leave a reply