কাঠের চিরুনি কেন প্লাস্টিকের চিরুনির থেকে চুলের জন্য বেশি ভালো

|

প্রাচীনকালে কাঠের চিরুনি ব্যবহার করা হত। তাই দেখা যায়, প্রাচীন কালে চুলের এত সমস্যাও ছিল না। তখন ঠাকুমা দিদিমাদের চুল যথেষ্ট লম্বা ও ঘন ছিল। তার কারন হল কাঠের চিরুনি। তখন তারা কাঠের চিরুনি ব্যাবহার করতেন। এখন বর্তমানে আমরা প্লাস্টিকের চিরুনি ব্যাবহার করি। এবং তার ফলেই চুলের সমস্যা অনেক বেড়েছে। কারন প্লাস্টিকের চিরুনিতে থাকে বিভিন্ন ক্ষতিকারক উপাদান, যা চুলের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক। আসুন জেনেনি কাঠের চিরুনি কেন চুলের জন্য ভালো।

কেন কাঠের চিরুনি ব্যবহার করা ভালোঃ কাঠের চিরুনি চুলের জন্য খুবই ভাল। কারন কাঠের চিরুনি মাথার রক্ত সঞ্চালনকে ঠিক রাখে। যখন কাঠের চিরনি ব্যাবহার করা হয় তখন এটি মাথার সমস্ত দিকে সমান ভাবে রক্ত সঞ্চালনকে ছড়িয়ে দেয়। যেটা সুন্দর চুলের জন্য খুবই দরকারি উপাদান। প্রথম শর্ত।এখন চুল ভেঙ্গে যাওয়ার একটি সমস্যা প্রায় সবারই দেখা যায়। কিন্তু যখন কাঠের চিরুনি ব্যবহার করা হয়, তখন এটি চুলের প্রাকৃতিক তৈলাক্ত ভাবকে সমস্ত চুলে সুন্দর ভাবে ছড়িয়ে দেয়। ফলে চুল তার প্রয়োজনীয় ময়েশ্চার পায়। যেটা চুলকে একটা বাউন্সি লুক দেয়। এবং চুল ফেটে যাওয়া নিয়ন্ত্রন করে।

চুল মাঝে মাঝে খুব রুক্ষ হয়ে যায়। চূলের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা চলে যায়। কিন্তু কাঠের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ালে রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে। তার ফলে চুল তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পায়। তার সাথে কাঠের চিরুনি স্ক্যাল্পের প্রাকৃতিক তৈলাক্ত ভাবকে চারিদিকে ছড়িয়ে দেবার জন্য চুল অতিরিক্ত শুকিয়ে যায় না।

খুশকির সমস্যা প্রায় সবারই কখনো না কখনো হয়েছে বা হয়। কাঠের চিরুনি এই সমস্যা রোধে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে। কাঠের চিরুনি তেলকে মাথার সমস্ত দিকে সুন্দর ভাবে ছড়িয়ে দেয়। যেটা স্কাল্প ময়েশচারাইজড্ করে। এর ফলে খুস্কির মত সমস্যা গুলি হয় না।

প্লাস্টিকের চিরুনি ভালো নাঃ প্লাস্টিকের চিরুনি দিয়ে আঁচড়াবার সময় মাথায় প্রচণ্ড তাপ উৎপন্ন করে। যেটি চুলের জন্য ক্ষতিকারক। অতিরিক্ত তাপ স্কাল্প সহ্য করতে পারে না এবং চুল পড়ে। কিন্তু কাঠের চিরুনিতে অতিরিক্ত তাপ উৎপন্ন হয় না। তার ফলে চুল পড়ে না। কাঠের চিরুনি প্রয়োজনীয় তাপকে মাথার সমস্ত দিকে সমান ভাবে ছড়িয়ে দেয়। যেটি মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় এবং চুল বাড়তেও সাহায্য করে।অনেকের স্কাল্পেই অ্যালার্জির সমস্যা হয়। প্লাস্টিকের ক্ষতিকর উপাদান থেকে এই সমস্যাটি হয়। কিন্তু কাঠের চিরুনি ব্যাবহার করলে এই সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়।

কাঠের চিরুনি ব্যবহার করুন ঃ যখন কাঠের চিরুনি ব্যবহার করা হয়, তখন প্রাকৃতিক ভাবে চুলের ভলিউম বাড়ে। হয়তো বিশ্বাস হবেনা। কিন্তু এটা সত্যি। আমরা জানি কাঠের ভেতর দিয়ে তড়িৎ প্রবাহিত হয়। আর ঘর্ষণের ফলে তড়িৎ উৎপন্ন হয়। তাই এতি চুলকে একত্রে জড়িয়ে ফেলে না।কাঠের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ালে মাথা পরিষ্কার থাকে। কারন আঁচড়াবার সময় মাথার ধুলো ময়লা বেরিয়ে আসে চিরুনির সঙ্গে । তার ফলে স্ক্যাল্প পরিষ্কার থাকে। এবং চুল কম পড়ে।

কাঠের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ালে চুল চকচকে হয়। এটি স্কাল্পের তেলকে সমস্ত দিকে ছড়িয়ে দেয় এবং প্রাকৃতিক কন্ডিশনারের কাজ করে।কাঠের চিরুনি শুধু রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় না। এটি চুলের গুনাগুন বাড়ায়। চুলকে গোড়া থেকে শক্ত করে।তাহলে জানা গেল কাঠের চিরুনির উপকারিতা। তাহলে আজ থেকেই ব্যবহার করতে শুরু করুন। আর নিজের চুলকে রক্ষা করুন।








Leave a reply