ওজন কমানোর পাশাপাশি সকালের রুটিনে অন্তর্ভুক্ত এই ৬ টি খাবারগুলি খান , আপনি আরও অনেক সুবিধা পাবেন

|

আপনি যদি প্রতিদিন সকালে কেবলমাত্র স্বাস্থ্যকর খাবার অন্তর্ভুক্ত করেন তবে আপনি অনেকগুলি স্বাস্থ্য উপকার পাবেন। ওজন হ্রাস ছাড়াও, আপনি আরও অনেক সুবিধা পাবেন-

স্বাস্থ্যকর এবং ফিট থাকার জন্য সকালের খাবার সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ। যদি আপনি প্রাতঃরাশের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার অন্তর্ভুক্ত করেন তবে আপনি সারা দিন ধরে শক্তিকে অনুভব করবেন। শুধু এটিই নয়, স্বাস্থ্যকর, ওজন হ্রাস ও খুব উপকারী। আপনি যদি প্রোটিন, ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার খান তবে আপনার শরীর এ থেকে অনেক উপকার পাবেন। প্রাতঃরাশ দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ, তাই কখনই এড়িয়ে যাবেন না, নাহলে আপনি সারা দিন ক্লান্ত বোধ করবেন।

আসুন জেনে নেওয়া যাক কোন খাবারগুলিতে প্রাতঃরাশে অন্তর্ভুক্ত করা উচিত-
১. ডিম: ডিমগুলিতে প্রোটিন বেশি থাকে এবং এতে অনেকগুলি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি থাকে। এটি পেট দীর্ঘকাল ধরে রাখে যাতে আপনি ওভাররাইট না করে। এ ছাড়া ডিমের সাদা অংশে খুব বেশি ক্যালোরি থাকে না।
২. গ্রীক-দই: গ্রীক দইতে প্রোটিন বেশি থাকে, যা ক্ষুধা কমাতে সহায়তা করে এবং ওজন হ্রাসে সহায়তা করে। কিছু ধরণের উপকারী প্রোবায়োটিকও রয়েছে। গ্রীক-দই ত্বকের জন্যও খুব উপকারী।
৩. ওটমিল: ওটমিলটিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে যা পেট দীর্ঘকাল ধরে রাখে, যাতে তাড়াতাড়ি খেতে খেয়াল রাখে না। এছাড়াও ওটমিলটিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।
৪. বেরি: বেরিগুলিতে ফাইবার বেশি এবং ক্যালরি কম থাকে। এগুলি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলিতেও সমৃদ্ধ যা আপনার হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে। এর বাইরে এটি কোলেস্টেরলও নিয়ন্ত্রণ করে।
৫. আখরোট: আখরোট ডায়াবেটিসযুক্ত ব্যক্তিদের জন্যও উপকারী। একটি সমীক্ষায়, ২ আউন্স (৫৬ গ্রাম) আখরোটে পর্যাপ্ত পরিমাণে কার্বস রয়েছে যা রক্তে শর্করার এবং কোলেস্টেরলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে। হৃদরোগের ঝুঁকিও হ্রাস করে।
৬. গ্রিন টি: গ্রিন টি একটি খুব উপকারী পানীয়। এতে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে। এছাড়াও গ্রিন টি বিপাকের হারও উন্নত করে। এছাড়াও গ্রিন-টি মস্তিষ্ক, স্নায়ুতন্ত্র এবং হৃদয়কে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে।








Leave a reply