ওজন কমাতে খান গোলমরিচ, দেখুন এর উপকারিতা

|

ডিমের পোচ বা বাটার টোস্টের উপরে গোলমরিচ ছড়িয়ে খেতে মন্দ লাগে না। এছাড়া, স্যুপ, স্টু ও আরও অনেক তরকারিতেও গোলমরিচের ব্যবহার করা হয়। গোলমরিচ স্বাদে-গন্ধে যেমন অতুলনীয়, তেমনই এটি আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষেও খুব উপকারি।

গোলমরিচ ভিটামিনের একটি দুর্দান্ত উৎস। এছাড়াও এটি দস্তা, সোডিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, ফসফরাস, ক্যালসিয়ামের মতো খনিজ সমৃদ্ধ। আসুন জেনে নেওয়া যাক এর উপকারিতা সম্পর্কে –

ওজন হ্রাস করে
গোলমরিচ নিয়মিত খেলে তা বিপাক বৃদ্ধিতে অত্যন্ত উপকারি। এটি চর্বি কমাতে সহায়তা করে এবং এটি ওজন হ্রাস করার একটি প্রাকৃতিক উপায়। মশলায় উপস্থিত ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস ফ্যাট কোষগুলি ভেঙে ফেলতে সহায়তা করে, যার ফলে দেহে উপস্থিত অতিরিক্ত ফ্যাট এবং টক্সিন থেকে মুক্তি পেতে সহজ করে তোলে। এটি গ্রহণ করার জন্য, আপনার খাবারে এক চিমটি গোলমরিচ যুক্ত করতে পারেন।

পাচন তন্ত্র
গোলমরিচে অনেক ধরনের পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায়। তাই এটি স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারি। গোল মরিচের মধ্যে রয়েছে পাইপারিন, যা পেটে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিডের নিঃসরণ উদ্দীপিত করে, যা খাবারের সঠিক হজমের জন্য প্রয়োজনীয়। এটি পেট ফাঁপা, কোষ্ঠকাঠিন্য এবং ডায়রিয়া প্রতিরোধ করে।

ইনফেকশন
গোলমরিচের আর একটি উপকারিতা হল সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার অসাধারণ ক্ষমতা। এর অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি এবং সংক্রমণ নিরাময়ে অত্যন্ত উপকারি।

কাশি-সর্দি থেকে মুক্তি দেয়
কাশি এবং সর্দি নিরাময়ে গোলমরিচ খুব কার্যকর। আপনি আধা চামচ মধু ও এক চিমটি গোলমরিচের গুঁড়ো মিশ্রিত করে খান। এটি ফ্লু, গলা ব্যথায় কাজ করবে। এছাড়া আদা, দারুচিনি ও এলাচ দিয়ে চায়ের সাথে অল্প গোলমরিচ যোগ করে আপনি পান করতে পারেন।








Leave a reply