আয়ুর্বেদের কথিত এই জিনিসগুলো শীতকালে আপনাকে ফিট রাখবে, জেনে নিন

|

শীত নক করেছে। তাপমাত্রা হ্রাস আপনাকে কিছুটা দুর্বল করতে পারে। এটি আপনাকে কাশি, সর্দি এবং জ্বরের ঝুঁকিতে ফেলেছে। এমন পরিস্থিতিতে রোগ থেকে বাঁচতে ডায়েট এবং লাইফস্টাইল পরিবর্তন করা দরকার। এমন কিছু জিনিস রয়েছে যা আপনি খেতে পারেন এবং শীতে নিজেকে উষ্ণ রাখতে পারেন। জামা এটি এক ধরণের শস্য। খনিজ এবং আঁশ একটি সমৃদ্ধ উত্স। শীতে বাজির রুটি খান। এটি জয়েন্টের ব্যথা প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে। মিললেট একটি ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ সিরিয়াল যা আপনার হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হতে পারে। এটিতে পটাশিয়াম রয়েছে যা রক্তনালীগুলিকে পাতলা করে এবং রক্তকে আরও সহজে প্রবাহিত করতে সহায়তা করে।

১.গুড় এবং ঘি এর সংমিশ্রণ সাইনাসগুলি পরিষ্কার করতে এবং ঠান্ডা প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে। দুপুরের খাবার ও রাতের খাবারের পরে কিছু গুড় এক চা চামচ ঘি যোগ করুন। আপনি এটি বাজানের কেক দিয়ে খেতে পারেন। গুড় আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শরীরকে উষ্ণ রাখে। এটি কাশি এবং সর্দি নিরাময়ে সহায়তা করতে পারে এবং শরীরের তাপমাত্রাও নিয়ন্ত্রণে রাখে। অন্যদিকে ঘি কোষ্ঠকাঠিন্য, মসৃণ হজম রোধ করতে পারে।

২. ভুট্টা হল অন্য পুষ্টিগুণ। ভুট্টা ময়দা গমের ময়দার আঠালো মুক্ত বিকল্প এতে বি ভিটামিন রয়েছে। এটি আপনার ত্বক, চুল, হৃদয়, মস্তিষ্ক এবং হজমের জন্যও ভাল। কর্ন রুটি ভিটামিন এ, সি, কে, বিটা ক্যারোটিন এবং সেলেনিয়ামের একটি ভাল উৎস।

৩. কলাই এর ডাল কিডনিতে পাথর প্রতিরোধে শুধু সাহায্য করে না, ত্বক ও মাথার ত্বকে শীতের সময়ও হাইড্রেটেড এবং পুষ্ট থাকতে সহায়তা করে। এই ডাল ভাত এবং ঘি দিয়ে খেতে পারেন। শীতে এই কলাই বিশেষ উপকারী। শীতকালে বাজি, ভুট্টা এবং গুড় শরীরে প্রচুর উপকার দেয়। শুধু সঠিক পরিমাণ নিতে।








Leave a reply