আপনি যদি হেডফোন বেশি ব্যবহার করেন তবে এই তথ্যটি আপনার জন্য

|

আজকাল, অটো বা বাসে, মেট্রোতে প্রতিটি ব্যক্তির কানে একটি ইয়ারফোন বা হেডফোন দেখা যায়। ইয়ারফোন এবং হেডফোন এর অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে মানুষের বড় ধরনের সাস্থের ক্ষতির সম্মুখিন হতে পারে। ইয়ারফোন এবং হেডফোনগুলির বেশি ব্যবহার করলে আপনার শ্রবণের উপর খুব প্রভাব ফেলতে পারে। আসুন আমরা জেনে নিই খুব বেশি ইয়ারফোন এবং হেডফোন ব্যবহার করলে কী কী ক্ষতি হতে পারে।

নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ ডাঃ ডি কে তায়াগি ব্যাখ্যা করে বলেছেন যে, অনেক যুবকই ইয়ারফোন বা হেডফোনের মাধ্যমে জোরে সংগীত শুনতে পছন্দ করেন। আধুনিক ইয়ারফোন এবং হেডফোনগুলি অনেক বৈশিষ্ট্য নিয়ে আছে যা উচ্চ ভলিউম শোনার পরে খুব ভাল লাগে। তবে এর ক্ষতি আপনার শরীরেই পড়বে। যখনই আপনার হেডফোন বা ইয়ারফোনগুলিতে ভলিউম বৃদ্ধি করবেন, আপনাকে তখনই একটি সতর্কতা দেওয়া হবে। আপনি যদি এর সীমা ছাড়িয়ে আপনার ইয়ারফোনটির ভলিউম এর পরিমাণ বাড়িয়ে দেন তবে তা আপনার কানের ক্ষতি করতে পারে। ইয়ারফোন এবং হেডফোনগুলির মাধ্যমে উচ্চ ভলিউমে গান বা কিছু শুনলে ধীরে ধীরে আপনার কানে শুনতে পাওয়ার ক্ষমতা দিন দিন কমে যাবে।

আপনি যদি নিয়মিত ইয়ারফোন বা হেডফোন ব্যবহার করেন তবে এখনই আপনার অভ্যাসটি পরিবর্তন করুন। অন্যথায় আপনার কান খুব অল্প দূর থেকে কিছু শুনতে অভ্যস্ত হয়ে যাবে এমনকি পরিস্থিতিতে আপনার কানে হেডফোন ছাড়াই দূরবর্তী বিষয় শুনতে অসুবিধা হতে পারে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে প্রেসবাইসিস বলা হয়।

এমন পরিস্থিতিতে আপনি অন্য কারোর ইয়ারফোন বা হেডফোন ব্যবহার করলে আপনার কানে সংক্রমণ হতে পারে। যা পরে আপনাকে বড় অসুস্থতায় ফেলেতে পারে। আপনার ইয়ারফোন বা হেডফোন অন্য কাউকে না দেওয়ার চেষ্টা করুন। অন্য কারোর ইয়ারফোন বা হেডফোন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

সতর্কতাঃ

• ফুল ভলিউম দিয়ে গান শুনবেন না।

• দীর্ঘ সময়ের জন্য ব্যবহার করবেন না।

• কারো ব্যবহার করা হেডফোন বা ইয়ারফোন কানে লাগাবেন না।








Leave a reply