আপনার ত্বক নরম করতে ৫ টি সুপার ফুড খান

|

শীতের মৌসুমে ত্বকের যত্ন নেওয়া বেশ কঠিন। শীতে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। শীতকালে, আমাদের শরীরে আর্দ্রতা হারাতে শুরু করে, যার কারণে স্থবিরতার মতো জিনিসগুলি ত্বকে প্রদর্শিত শুরু করে। এটি ত্বককে নরম রাখতে এবং দেহে সঠিক আর্দ্রতা রাখা উভয়ের পক্ষে খুব গুরুত্বপূর্ণ।

ত্বককে নরম রাখতে, অনেকেই শীতের মৌসুমে প্রায়ই ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে বিভিন্ন ধরণের জিনিস ব্যবহার করেন। আপনার সচেতন হওয়া উচিত যে যখন আপনার শরীর পুরোপুরি আর্দ্র হবে তখন এটি আপনার ত্বককেও নরম করে তুলবে এবং শুষ্ক দেখাবে না।
শীতকালে বেশিরভাগ লোক ত্বকের সমস্যায় পড়ে থাকে। তবে আপনি যদি আপনার ডায়েটে সঠিক জিনিসগুলি অন্তর্ভুক্ত করেন তবে এটি আপনার ত্বককে নরম রাখবে এবং এটি ত্বকেরও উন্নতি করবে। শীত মৌসুমে কম পানি পান করা ত্বকের জ্বালা হওয়ার আরেকটি কারণ। শীতকালে আমরা তৃষ্ণা কম অনুভব করি, যার কারণে আমরা কম পানি পান করি। তবে এর কারণে আমাদের শরীরে আর্দ্রতা হ্রাস পায় এবং স্থবিরতা আসতে থাকে। আমরা আপনাকে এমন কয়েকটি সুপারফুড বলব যা আপনাকে ত্বকে য়েশ্চারাইজ রাখবে এবং ত্বকে আপনার কোনও সমস্যা হবে না।

গাজর
‘হিলিং ফুডস’ বইয়ের মতে শীতের মৌসুমে গাজর খাওয়া ত্বকের জন্য বেশ উপকারী হতে পারে। গাজরে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে সিলিকন রয়েছে, যা আমাদের ত্বককে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। এর পাশাপাশি, গাজরে ভিটামিন এ উপাদান রয়েছে যা আমাদের মুখের দাগ এবং অন্ধকার বৃত্তগুলি অপসারণ করতে সহায়তা করে।

বিটরুট
বিটরুটে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। যা আমাদের ত্বককে উন্নত করার পাশাপাশি এটি আমাদের বর্ধমান বয়সের লক্ষণগুলি আড়াল করতে সহায়ক। আপনি যদি বীটরুট খেতে পছন্দ না করেন তবে আপনি বিটরুটের রসও পান করতে পারেন।

কমলালেবু
কমলাগুলিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান রয়েছে এবং এতে ভিটামিন সি রয়েছে। ভিটামিন সি আমাদের ত্বকের উন্নতি করতে সহায়তা করে। কমলার রসও পান করতে পারেন। প্রতিদিন কমলার রস পান করে, আপনি শীঘ্রই আপনার ত্বকে এর উপকারিতা দেখতে পাবেন। এছাড়াও আপনার মুখের দাগগুলিতে কমলার জুস লাগাতে পারেন।

আনার (ডালিম)
ডালিম সেবন আমাদের দীর্ঘ সময় ধরে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। ডালিমে প্রচুর পরিমাণে পানি থাকে যা আমাদের ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে কাজ করে। এছাড়াও ডালিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে যা আমাদের ত্বককে বাড়িয়ে তোলে। ডালিমে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট উপাদানগুলি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী বলে মনে করা হয়।

পেয়ারা
পেয়ারা খাওয়া বিভিন্নভাবে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। পেয়ারা রক্তে শর্করার মাত্রার জন্য অনেক ভাল বলে বিবেচিত হয়। পেয়ারাতে ভিটামিন এ, সি, বিটা ক্যারোটিনের মতো প্রচুর উপাদান রয়েছে। এটি আমাদের ত্বকের উন্নতি করতে এবং মুখ থেকে দাগ দূর করতে সহায়তা করে।








Leave a reply