আদা চায়ের ৬টি গুণ সম্পর্কে জেনে নিন

|

সকালে এক কাপ চা না হলে কি চলে? চা খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ মনে হয় পাওয়া যাবে না। চায়ের তো কত রকমের প্রকারভেদই আছে। দুধ চা, রঙ চা, লেবু চা, আদা চা, সবুজ চা, মধু চা, মশলা চা ইত্যাদি আরো অনেক রকমের চা খেতে ভালোবাসেন চা প্রেমীরা। প্রায় সব রকম চায়েরই আছে কিছু উপকারীতা। আসুন আজ জেনে নেয়া যাক আদা চায়ের কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে।

জেনে নিন আদা চায়ের ৬টি দারুণ ব্যবহার

প্রদাহ কমায়
আদাতে কিছু বিশেষ উপাদান আছে যেগুলো প্রদাহ কমিয়ে দেয়। তাই মাংস পেশীর ব্যথা কিংবা অস্থি সন্ধির ব্যাথাতে আদা চা খাওয়া উপকারী। প্রদাহের স্থানে গরম আদা চা দিয়ে ভেজানো কাপড় পেচিয়ে রাখলেও ব্যাথা কিছুটা কমে।

শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা কমায়
বুকে কফ জমে কিংবা ঠান্ডা লেগে যাদের শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা দেখা দেয় তাদের জন্য প্রাকৃতিক ওষুধ হলো আদা চা। এছাড়াও খুসখুসে কাশিতেও আদা চা খেয়ে বেশ উপকার পাওয়া যায়।

রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে
আদা চায়ে আছে ভিটামিন, মিনারেল ও অ্যামিনো এসিড যা শরীরে রক্তচলাচল বাড়ায় এবং হৃদপিন্ডকে সচল রাখে। আদা ধমনী থেকে অতিরিক্ত চর্বি সরিয়ে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুকি কমিয়ে দেয়।


বমি ভাব দূর করে
আদা চা বমি ভাব কমায়। তাই দূরে কোথাও ভ্রমণের আগে এক কাপ আদা চা খেয়ে নিলে মোশন সিকনেসের কারণে বমি বমি ভাব কমানো যায়।

মানসিক চাপ কমায়
অনেক সময় আমরা অনেক কারণে মানসিক চাপ ও অস্থিরতায় ভুগে থাকি। এসময়ে আদা চা খেলে বেশ উপকার পাওয়া যায়। এক কাপ গরম আদা চা মনকে শান্ত করে এবং মানসিক চাপ কমিয়ে দেয়।

পাকস্থলীর কার্যক্ষমতা বাড়ায়
অনেক সময় আমরা অতিরিক্ত খেয়ে ফেলি। আর বেশি খেয়ে ফেললে বেশ অস্বস্তি লাগতে থাকে। এসময়ে এক কাপ আদা চা খেয়ে নিলে অস্বস্তি ভাব কমে যাবে ও খাবার দ্রুত হজম হবে।

মাসিকের অস্বস্তি কমায়
মাসিকের সময় অনেকেরই পেট ব্যাথা ও নানান রকম অস্বস্তি দেখা দেয়। এই অস্বস্তি দূর করতে আদা চা বেশ উপকারী। মাসিকের সময় পেটে ব্যাথা হলে গরম আদা চা তে টাওয়েল ভিজিয়ে তলপেটে ধরে রাখুন। আদা চা মাংসপেশীকে শিথিল করে পেটের ব্যাথা কমিয়ে দেবে। এছাড়াও এসময় আদা চায়ে মধু মিশিয়ে খেয়ে বেশ উপকার পাওয়া যায়।








Leave a reply